শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১০:৩২ পূর্বাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ লাখ ছাড়িয়েছে আজ স্বাধীনতা পুরস্কার প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইরফান সেলিম কাউন্সিলর পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত নৌ বাহিনীর কর্মকর্তা হামলার সঙ্গে জড়িতদের ছাড় দেয়া হবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান মাস্ক পরিধান ছাড়া কেউ কোন সেবা পাবে না : রাষ্ট্রীয় নির্দেশ বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত বরেণ্য আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক যুক্তরাষ্ট্রে অস্ট্রাজেনকা ও জে এন্ড জে’র ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল পুনরায় শুরু কোভিড-১৯ মোকাবেলায় বাংলাদেশকে ১শত ভেন্টিলেটর প্রদান করেছে যুক্তরাষ্ট্র ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদানে অনিয়ম রোধে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রতি নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রোহিঙ্গাদের দুর্দশায় মুখ ফিরিয়ে না নিতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি যুক্তরাজ্যের আহ্বান

রাজবাড়ী জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার কাজী আব্দুল মতিনের প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী আজ

  • আপডেট সময় শনিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২০

কাজী আব্দুল মতিন, জন্ম ১৯৫৩ সালের ৩০শে মার্চ। রাজনীতির হাতেখড়ি ১৯৬৯ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ দিয়ে। এরপর বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে ছাত্র আন্দোলন এবং পরবর্তীতে মহান স্বাধীনতার যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। তিনি মুজিব বাহিনীর সক্রিয় সদস্য ছিলেন। দেশ স্বাধীনের পর ১৯৭৭ সালে তিনি রাজবাড়ী সরকারী কলেজ সংসদে জাসদ ছাত্রলীগ থেকে ভিপি নির্বাচিত হন।
ছাত্র রাজনীতির কারণে কাজী আব্দুল মতিন ফরিদপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে ২৫মাস কারাভোগ করেন। পরবর্তীতে ১৯৮০ সালে মেজর জিয়াউর রহমান নতুন রাজনৈতিক দল বিএনপি গঠন করলে তিনি এ দলে যোগদান করেন। ১৯৯২ থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত তিনি রাজবাড়ী জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর ২০০০ সালে তিনি জেলা বিএনপির সভাপতি পদেও দায়িত্ব পালন করেন। ২০০১ সালে তিনি জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ছিলেন। এরপর থেকে তিনি দীর্ঘদিন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ তিনি জেলা বিএনপির সদস্য পদে ছিলেন।
কাজী আব্দুল মতিন ২০০২ সালে রাজবাড়ী জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার নির্বাচিত হন। তিনি প্রথম শ্রেণীর একজন ঠিকাদার ও ইটভাটা ব্যবসায়ী ছিলেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি এ পদে দায়িত্বরত ছিলেন।
কাজী আব্দুল মতিন শুধু রাজনীতিবিদ ও ব্যবসায়ীই ছিলেন না। জেলার ক্রীড়াঙ্গনেও ছিল তার বিশেষ ভূমিকা। জেলা ক্রীড়া সংস্থার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে তিনি ২০১০ সাল পর্যন্ত সহ-সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৯ সালের ১৭ই অক্টোবর তিনি ৬৬ বছর বয়সে ইন্তেকাল করেন।
আজ ১৭ই অক্টোবর-২০২০ তার ১ম মৃত্যু বার্ষিকী। তার মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার বাদ জুম্মা পরিবারের পক্ষ থেকে বড়পুল ও মাটিপাড়া জামে মসজিদে বিশেষ দোয়া মাহফিল, বড়পুল হরিতলা মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনা ও সরকারী শিশু সদনে খাবার বিতরণ করা হয়। -সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!