বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০৮:৩১ পূর্বাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
আফিফ-নুরুলের জুটিতে ডাবল লিড বাংলাদেশের নাসুমের ঘূর্ণিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম জয় ডিপ্লোমা কোর্সের প্রথম ও দ্বিতীয় শিফটের তত্ত্বীয় ক্লাস আগামী ৭ই আগস্ট শুরু হবে ৫৬ বছর পর হলদিবাড়ি-চিলাহাটি রেলপথ খুলে দিল বাংলাদেশ-ভারত চীনে ডেল্টা ভেরিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সতর্কতা শোকাবহ আগস্টের প্রথম দিন আজ ভ্যাকসিন ডোজ সম্পন্নকারী পর্যটকরা সৌদি আরবে ভ্রমণ করতে পারবে রাজবাড়ীতে গত ২৪ ঘন্টায় ১৪১ জনের করোনা শনাক্ত কোভিড-১৯ মোকাবলোয় সহযোগিতা জোরদার করতে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র সম্মত করোনা টিকার আওতায় দেশের ১ কোটি ২৩ লাখ ৩৪ হাজার ৪৭৯ জন মানুষ

জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ফকীর আব্দুল জব্বার বিজয়ী

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

॥আসহাবুল ইয়ামিন রয়েন॥ শান্তিপূর্ণ পরিবেশে গতকাল ২৮শে ডিসেম্বর রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং ৩টি সংরক্ষিত ও ১১টি সাধারণ ওয়ার্ডের সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচন চলাকালে কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।
সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ১৫টি ভোটকেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শেষে বেলা সাড়ে ৩টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে স্থাপিত নির্বাচনের ফলাফল সংগ্রহ ও পরিবেশন কেন্দ্র থেকে রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক জিনাত আরা ফলাফল ঘোষণা করেন। এ সময় সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ মাজহারুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব) মোঃ আশরাফ হোসেন ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মানোয়ার হোসেন মোল্লা উপস্থিত ছিলেন।
ঘোষিত ফলাফলে নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের সমর্থিত প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ফকীর আব্দুল জব্বার(তালগাছ) প্রতীকে ৫০৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বি রাজবাড়ী সরকারী কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি মোঃ রকিবুল হাসান পিয়াল(আনারস) প্রতীকে পেয়েছেন ৮৫ ভোট পেয়েছেন। উভয়ের প্রাপ্ত ভোটের ব্যবধান ৪২০টি। চেয়ারম্যান পদে মোট ৫৯৮জন ভোটারের মধ্যে ৫৯৬ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। তার মধ্যে ৬টি ভোট বাতিল ঘোষিত হয়।
সংরক্ষিত ওয়ার্ড(মহিলা) ঃ সংরক্ষিত ১ নং ওয়ার্ডে মোছাঃ নুরজাহান বেগম হরিণ প্রতীকে ৬৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি লুৎফুন নাহার ফুটবল প্রতীকে ২৭ ভোট, মোছাঃ আছিয়া বেগম বই প্রতীকে ২৩ ভোট, মোছাঃ আলেয়া বেগম কম্পিউটার প্রতীকে ১৬ ভোট ও মর্জিনা বেগম দোয়াত-কলম প্রতীকে ৬ ভোট পেয়েছেন।
২নং ওয়ার্ডে মিসেস শাহানা বেগম ফুটবল প্রতীকে ৫১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মিসেস রহিমা খাতুন হরিণ প্রতীকে ৩৩ ভোট, কানিজ ফাতেমা টেবিলঘড়ি প্রতীকে ২৭ ভোট ও রওশন আরা বেগম রানু দোয়াত-কলম প্রতীকে ৫ ভোট পেয়েছেন।
৩নং ওয়ার্ডে মোছাঃ কহিনূর বেগম দোয়াত-কলম প্রতীকে ৬২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বি বাসন্তী স্যানাল ফুটবল প্রতীকে পেয়েছেন ৫৫ ভোট।
সংরক্ষিত ৪ ও ৫নং ওয়ার্ডের প্রার্থীরা নির্বাচনের পূর্বেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।
সাধারণ ওয়ার্ড ঃ সাধারণ ১নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ নুরুজ্জামান মিয়া(টিউবওয়েল) ২৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বি মোঃ নুরুল আমিন(হাতি) পেয়েছেন ১৩ ভোট।
২নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ হাসান ইমাম চৌধুরী(টিউবওয়েল) ১৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বি মোঃ আব্দুল রশিদ মিয়া(অটোরিক্সা) প্রতীকে ১৫ ভোট এবং মোঃ আসজাদ হোসেন আজু(ঢোল) ৬ ভোট পেয়েছেন।
৩নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে মোঃ আলাউদ্দিন শেখ(অটোরিক্সা) ২০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মোহাম্মদ আলী সরদার(তালা) ১৯ ভোট পেলেও অপর প্রতিদ্বন্দ্বি মিজানপুর ইউপির প্রাক্তন চেয়ারম্যান মোঃ কবির উদ্দিন সিকদার বাবলু(টিউবওয়েল) ১টি ভোটও পাননি।
৪নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে মোঃ নাজমুল হাসান মিন্টু(তালা) ২৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বি বানীবহ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক মেম্বার আব্দুল হক মন্ডল দারোগালী হাতি প্রতীকে পেয়েছেন ১২ ভোট।
৫নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মোঃ রাশেদুল হক অমি(তালা) ১৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বি আবু মোঃ হাসান(টিউবওয়েল) ১৩ ভোট, জেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ মোঃ আজগর আলী বিশ্বাস(ঘুড়ি) ১০ ভোট এবং এডঃ নজরুল ইসলাম লাভলু(হাতি) ১টি ভোটও পাননি।
৬নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ ভুঁইয়া(তালা) ২২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বি মোঃ রফিকুল ইসলাম(টিউবওয়েল) পেয়েছেন ১৭ ভোট।
৭নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে মীর্জা মোঃ ফরিদুজ্জামান(অটোরিক্সা) ২০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামী লীগের মনোনীত মোঃ আব্দুল মান্নান মিয়া(তালা) ৯ ভোট, মোঃ আলিমুজ্জামান(টিউবওয়েল) ৯ ভোট, মোঃ আক্তার উজ্জামান(বৈদ্যুতিক পাখা) ১ভোট এবং মোঃ হাবিবুর রহমান(হাতি) ০(শূণ্য) ভোট পেয়েছেন।
৮নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে আব্দুস সাত্তার খান(টিউবওয়েল) ২৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বি মোঃ আলমগীর বিশ্বাস(হাতি) ৮ ভোট এবং মুহাম্মদ মতিয়ার রহমান(তালা) ৭ভোট পেয়েছেন।
৯নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে মোঃ আব্দুল হান্নান(টিউবওয়েল) ২২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বি মুন্সী আবুল কালাম শামছুদ্দিন(তালা) পেয়েছেন ১৭ ভোট।
১৪ নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে মোঃ শাজাহান আলী(টিউবওয়েল) ২৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বি যশাই ইউনিয়ন পরিষদের প্রাক্তন চেয়ারম্যান হাজী আব্দুল হাকিম খান(তালা) ১৪ ভোট এবং মোঃ আজাদ সিকদার(হাতি) প্রতীকে ০(শূণ্য) ভোট পেয়েছেন।
১৫নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে মোঃ হাবিবুর রহমান হাতি প্রতীকে ২৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বি মোঃ গোলাম মোস্তফা লুলু(টিউবওয়েল) ১৫ ভোট এবং একেএম মোজাম্মেল হক(তালা) ০ (শূণ্য) ভোট পেয়েছেন।
সাধারণ ১০, ১১, ১২ ও ১৩ নং ওয়ার্ডের প্রার্থীরা নির্বাচনের পূর্বেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। তারা হলেন ঃ ১০ নং ওয়ার্ডে মিজানুর রহমান মজনু, ১১নং ওয়ার্ডে মোঃ খায়রুল ইসলাম, ১২নং ওয়ার্ডে উত্তম কুমার কুন্ডু ও ১৩নং ওয়ার্ডে পাংশা উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আহম্মদ হোসেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!