সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১০:৫৮ অপরাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
শান্তি চুক্তির পঞ্চম বার্ষিকী উপলক্ষে কলম্বিয়া সফর জাতিসংঘ মহাসচিব সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনীর প্রধানগণের সাক্ষাৎ করোনা ভাইরাসের সংক্রমন বেড়ে যাওয়ায় অস্ট্রিয়ায় লকডাউন করোনা সংক্রমণ বাড়ায় ইউরোপের বিভিন্ন দেশে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ ভারতে নতুন করে ১০ হাজার ৩০২ জন করোনায় আক্রান্ত নভেম্বর মাসজুড়ে করাঞ্চলে কর মেলার সেবা পাবেন করদাতারা ঔপনিবেশিক আমলের ফৌজদারী কার্যবিধি যুগোপযোগী হচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুক সহিংসতা গত বছর বেড়েছে ৩০ শতাংশ জাতিসংঘের ৭৬তম অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিউইয়র্কের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়ছেন আজ নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশন ৭৬তম শুরু

নভেম্বর মাসজুড়ে করাঞ্চলে কর মেলার সেবা পাবেন করদাতারা

  • আপডেট সময় বুধবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২১

॥স্টাফ রিপোর্টার॥ কোভিড-১৯ মহামারি পরিস্থিতির কারণে এবারও আয়কর মেলা হচ্ছে না। তবে দেশের সকল কর অঞ্চলে আগামী নভেম্বর মাসজুড়ে কর মেলার পরিবেশে সব ধরনের করসেবা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের(এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মোঃ রহমাতুল মুনিম।
গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় রাজস্ব ভবন সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতির কারণে এবারও আমরা করমেলা করতে পাচ্ছি না। তবে এর পরিবর্তে গত বছরের মতো সকল সার্কেল ও করাঞ্চলে মেলার পরিবেশ নিয়ে আসবো। সেখানে করদাতারা সব ধরনের করসেবা পাবেন।’
নভেম্বর মাসজুড়ে কর সেবা প্রদান উপলক্ষে এনবিআর সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।
এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের ৩১টি কর অঞ্চলে ৬৪৯টি সার্কেলে গতবারের মতো এবারও ১ থেকে ৩০শে নভেম্বর পর্যন্ত আয়কর রিটার্ন গ্রহণ করা হবে। তবে কয়েক জায়গায় বিশেষ সেবা বুথ দেয়া হচ্ছে। যেমন ঢাকায় সরকারী কর্মকর্তাদের জন্য করাঞ্চল ছাড়াও সচিবালয়ে একটি বুথ দেয়া হচ্ছে।
সরকারী চাকরিজীবীরা যাতে তাদের সময় বাঁচাতে পারেন। এ জন্য ১ থেকে ১৪ই নভেম্বর পর্যন্ত সচিবালয়ের বুথে সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সেবা পাবেন। এ ছাড়া অফিসার্স ক্লাবেও তারা আয়কর রিটার্ন জমা দিতে পারবেন। সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা ঢাকা সেনানিবাসে ৯ থেকে ১০ই নভেম্বর দু’দিন রিটার্ন জমা দিতে পারবেন। ২৪শে নভেম্বর সর্বোচ্চ কর প্রদানকারী ১৪১ জনকে সম্মাননা প্রদান করা হবে।
চলতি অর্থ বছরের প্রথম তিন মাসে ৪ লাখের বেশি মানুষ ই-টিআইএন রেজিস্ট্রেশন করেছেন। ২০২০-২১ অর্থ বছরে নিবন্ধনের সংখ্যা ছিল ১৩ লাখ। এ পর্যন্ত মোট ৬৭ লাখ ৯২ হাজার ব্যক্তি ই-টিআইএন রেজিস্ট্রেশন নিয়েছেন বলে জানান রহমাতুল মুনিম।
সংবাদ সম্মেলনে এনবিআরের সদস্যবৃন্দ ছাড়াও অন্যান্য জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!