শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৮:৫৫ পূর্বাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
বিশ্বব্যাপী ওমিক্রন সংক্রমণ বৃদ্ধিতে আইসোলেশন মেয়াদ অর্ধেক করার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ওমিক্রন ভেরিয়েন্ট ডেল্টা ও বিটার তুলনায় তিন গুণের বেশী পুনঃ সংক্রমন ঘটাতে পারে : গবেষণা প্রতিবেদন জাতিসংঘ ভবনের বাইরে এক বন্দুকধারী গ্রেফতার শান্তি চুক্তির পঞ্চম বার্ষিকী উপলক্ষে কলম্বিয়া সফর জাতিসংঘ মহাসচিব সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনীর প্রধানগণের সাক্ষাৎ করোনা ভাইরাসের সংক্রমন বেড়ে যাওয়ায় অস্ট্রিয়ায় লকডাউন করোনা সংক্রমণ বাড়ায় ইউরোপের বিভিন্ন দেশে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ ভারতে নতুন করে ১০ হাজার ৩০২ জন করোনায় আক্রান্ত নভেম্বর মাসজুড়ে করাঞ্চলে কর মেলার সেবা পাবেন করদাতারা ঔপনিবেশিক আমলের ফৌজদারী কার্যবিধি যুগোপযোগী হচ্ছে

বালিয়াকান্দির জামালপুরে সরকারী খালে গরুর খামারের বর্জ্য ফেলায় জনদুর্ভোগ॥গণঅভিযোগ দাখিল

  • আপডেট সময় রবিবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২০

॥তনু সিকদার সবুজ॥ বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের স্বর্পবেতেঙ্গা গ্রামে সরকারী খালে গরুর খামারের দূষিত বর্জ্য ফেলে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের সৃষ্টি করেছে স্থানীয় তোফেল সেখ নামে এক প্রভাবশালী।

এতে ব্যাপক জনদুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে। এর থেকে পরিত্রাণ পেতে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে গতকাল ১৮ই এপ্রিল দুপুরে বালিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট একটি ৩০জনের স্বাক্ষরিত একটি গণঅভিযোগ দাখিল করা হয়েছে।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, জামালপুর ইউনিয়নে চন্দনা নদী থেকে উৎপত্তি হয়ে স্বর্পবেতেঙ্গা গ্রামের মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত হয়ে ঘোড়াদার বিলে মিলিত সরকারী খাল ও পার্শ্ববর্তী কবরস্থান ঘেঁষে দীর্ঘদিন ধরে এলাকার প্রভাবশালী মৃতঃ বিশু সেখের ছেলে তোফেল সেখ অপরিকল্পিতভাবে একটি গরুর খামার গড়ে তুলেছে। ওই গরুর খামারের দূষিত বর্জ্য ফেলার ফলে খালটির বেশ কিছু অংশ প্রায় ভরাট হয়ে গেছে। এর পাশাপাশি দূষিত বর্জ্য পঁচে দুর্গন্ধের ফলে আশপাশের পরিবেশ অস্বাস্থ্যকর হয়ে উঠেছে। স্থানীয় মানুষের মধ্যে ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গুসহ বিভিন্ন রোগ দেখা দিচ্ছে। এলাকাবাসী বার বার নিষেধ করলেও গরুর খামারের মালিক তা অগ্রাহ্য করে যাচ্ছে। বর্জ্য ফেলতে বাধা দেয়ায় স্থানীয় মিজান, মুস্তাফিজসহ কয়েকজনকে মারপিট করে আহত করেছে। এছাড়া নিজের গরু মেরে ফেলে প্রতিবাদকারীদের ফাঁসানোর হুমকি দিয়ে আসছে। এ বিষয়ে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ স্থানীয় ইউপি সদস্য ও চেয়ারম্যানকে অবগত করেও কোন পরিত্রাণ মেলেনি। এর ফলে এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। যেকোন সময় সংঘর্ষও ঘটতে পারে।

বালিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী অফিসার একেএম হেদায়েতুল ইসলাম গণঅভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আমার কাছে একটি অভিযোগ এসেছে। সেটি তদন্তের জন্য উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তার নিকট পাঠিয়েছি। প্রতিবেদন পাওয়ার পর এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!