রবিবার, ০৫ জুলাই ২০২০, ০৮:২১ অপরাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
পাংশার ১২০ জন নরসুন্দরকে খাদ্য সামগ্রী প্রদান করলেন মিতুল হাকিম ডোনাল্ড ট্রাম্পকে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা ঘোষণা বার্ষিকীতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা বিশ্বে করোনায় মোট ৫ লাখ ২৬ হাজার ৬৬৩ জনের মৃত্যু রাজবাড়ীসহ দেশের ছয়টি জেলায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে ইউনিসেফের নির্বাহী বোর্ডের বার্ষিক অধিবেশনের সমাপনী রাজবাড়ীতে সোনালী ও ইসলামী ব্যাংকের ১৯জন করোনায় আক্রান্ত॥শাখা লকডাউন হচ্ছে রবিবার॥জেলায় আক্রান্ত ৫৪৬জন জাতীয় সংসদে ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের ৫লাখ ৬৮হাজার কোটি টাকার বাজেট পাস আমেরিকায় হু হু করে বাড়ছে করোনার নতুন শনাক্তের সংখ্যা॥কমছে মৃত্যু স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে আগামী ৩রা আগস্ট পর্যন্ত চলবে অফিস ও গণপরিবহন করোনার ভয়াবহতা এখনও বাকি : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

কোভিড-১৯ টিকার উদ্ভাবনে চীনের দৃশ্যমান অগ্রগতি

  • আপডেট সময় বুধবার, ১৭ জুন, ২০২০

॥আন্তর্জাতিক ডেস্ক॥ চীন গতকাল ১৬ই জুন জানিয়েছে, তারা করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে টিকা উদ্ভাবনে এগিয়ে গেছে। তাদের এই টিকা কোন বড় ধরণের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই ৯০ শতাংশ মানুষের দেহে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সফলভাবে কাজ করেছে।
টিকা নির্মাতা সাইনোভেক বায়োটেক লিমিটেডকে উদ্ধৃত করে রাষ্ট্রিয় গণমাধ্যম সিনহুয়া জানায়, ১৪দিনের ব্যবধানে টিকা দেয়ার ফলে ৯০ শতাংশেরও বেশি মানুষের দেহে করোনা নিস্ক্রিয় করতে সক্ষম এন্টিবডি তৈরি হয়েছে।
চীনের অন্যান্য প্রধান গণমাধ্যমেও এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই টিকা গুরুতর কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই মানবদেহে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সক্ষম।
সিনহুয়া জানায়, চীনে প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ের পরীক্ষামূলক প্রয়োগের প্রাথমিক গবেষণাকালে ১৮-৫৯ বছর বয়সী ৭৪৩জন সুস্থ ব্যক্তির দেহে দু’বার এই টিকা দেওয়া হয়।
সাইনোভাক বায়োটেক বলেছে, কোম্পানিটি অপর একটি গ্রুপে তৃতীয় পর্যায়ে ২৮দিনের ব্যবধানে টিকা প্রয়োগের পর তথ্য সংগ্রহের জন্য অপেক্ষা করছে। তারা ব্রাজিলে এ পরীক্ষা চালিয়েছে।
ব্রাজিল বর্তমানে করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে সারা বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় রয়েছে। তাদের স্বাস্থ্য বিভাগ ব্রিটিশ ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান অ্যাস্ট্রাজেনেকার উৎপাদিত অক্সফোর্ডের টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগের অনুমোদন দিয়েছে।
ল্যাটিন আমেরিকার এই দেশটিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পর অন্য যে কোন দেশের চেয়ে বেশী প্রাণহানি ঘটেছে। প্রতিদিন সেদেশে মহামারীর কারণে মৃত্যুর সংখ্যা এখন বিশ্বের সর্বোচ্চ।
সাইনোভাকের টিকাটি চীনের পাঁচটি পরীক্ষামূলক টিকার মধ্যে অন্যতম।
এদিকে সংবাদ সংস্থা রয়টার্স জানায়, অ্যাস্ট্রাজেনেকা বিশ্বব্যাপি দুই কোটি ডোজ কোভিড-১৯ টিকার চাহিদা পূরণের জন্য ক্যাটালেন্ট এর সঙ্গে একটি চুক্তি করেছে। ২০২০ সালের শেষ নাগাদ এই প্রতিষ্ঠানের তৈরী ৪০০ মিলিয়ন ডোজ টিকা সরবরাহের জন্য ইউরোপীয় সরকারগুলোর সঙ্গে চুক্তি করার একদিন পরে এই তথ্য জানা গেছে।
অন্যদিকে টিকা উদ্ভাবনকারী মার্কিন ঔষধ নির্মাতা মডার্না বলেছে, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এ বছরের নভেম্বর মাসে থ্যাঙ্কসগিভিং ডে-র মধ্যে কোভিড-১৯ টিকার কার্যকারিতার তথ্য পাওয়া যাবে।
মডার্নার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা স্টিফেন ব্যানসেল গতকাল ব্লুুমবার্গ টেলিভিশনে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, থ্যাঙ্কসগিভিং ডে-এর মধ্যে আমাদের টিকার কার্যকারিতার তথ্য পেতে পারি।
মডার্নার পরবর্তী পদক্ষেপ হবে মার্কিন খাদ্য ও ঔষধ প্রশাসনের(এফডিএ) অনুমোদন নিশ্চিত করা। অন্যদিকে ব্যানসেল আশা করছেন, অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ লোকদের উপর এই টিকা প্রয়োগের জন্য জরুরি ভিত্তিতে অনুমোদন দেওয়া হবে।
মডার্না টিকার ন্যায্য মূল্য নির্ধারণ করা নিয়ে চিন্তা করতে শুরু করেছে উল্লেখ করে বানসেল বলেন, আমরা নিশ্চিত করতে চাই যে, টিকার মূল্য হবে সাশ্রয়ী । তিনি বলেন, টিকাটি বিনামূল্যে দেয়া হবে না। ব্যবসা এভাবে হয় না।
জাতিসংঘের বাণিজ্য ও উন্নয়ন সংস্থা- আঙ্কটাড সম্প্রতি বলেছে, দরিদ্র দেশগুলোকে সম্ভাব্য কোভিড-১৯ টিকার সহজলভ্যতা নিশ্চিত করতে স্থানীয় পর্যায়ে উৎপাদন বাড়াতে হবে।
তিন সপ্তাহ আগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার(হু) সঙ্গে অনলাইন সেমিনারের উদ্বোধনের সময় আঙ্কটাড এর বিনিয়োগ ও এন্টারপ্রাইজ বিষয়ক পরিচালক জেমস ঝান বলেছেন, কোভিড-১৯ এর জন্য টিকা পাওয়া গেলে, এর বিপুল চাহিদা দ্রুত সরবরাহকে ছাড়িয়ে যাবার সম্ভাবনা রয়েছে।
আঙ্কটাড এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, দরিদ্র দেশগুলোকে টিকাসহ কোভিড-১৯ নিরাময়ের ওষুধগুলো সহজলভ্য করার উপায় অনুসন্ধান করতে জাতিসংঘের সংস্থা হু এর সঙ্গে কাজ করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর