শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০, ০৭:২৬ অপরাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
করোনা মোকাবেলায় রাজবাড়ী জেলা পুলিশকে পারলীন গ্রুপের পক্ষ থেকে ৮৭৩পিস পিপিই প্রদান সমুদ্র সম্পদের টেকসই ব্যবহারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তিন দফা প্রস্তাব পেশ নিউইয়র্কে রাত্রিকালীন কারফিউ বলবৎ থাকবে ৭ই জুন পর্যন্ত পেরুতে করোনা ভাইরাসে ২০ জন সাংবাদিকের মৃত্যু যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভের কারণে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফোনে ভারতের মোদীর ঈদ শুভেচ্ছা পবিত্র ঈদুল ফিতরে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা ও ঈদ উপহার রাজবাড়ীতে দুস্থদের মধ্যে অর্থ-শাড়ী বিতরণ করলেন সংসদ সদস্য সালমা চৌধুরী রুমা রাজবাড়ী জেলার প্রায় সকল মসজিদে ও পারিবারিকভাবে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত যুক্তরাষ্ট্রে ঘরোয়া পরিবেশে ঈদ-উল ফিতর উদযাপন করলো মুসলিমরা

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মোটর সাইকেলে ঢাকায় ফিরছে যাত্রীরা !

  • আপডেট সময় রবিবার, ১০ মে, ২০২০

॥সোহেল মিয়া॥ করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে সারা দেশে চলছে লকডাউন। সেই সাথে বন্ধ রয়েছে গণপরিবহন। কিন্তু গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও থেমে নেই মানুষের যাতায়াত। ব্যক্তিগত মোটর সাইকেল হয়ে উঠেছে অনেকেরই যাতায়তের মূল বাহন। মোটর সাইকেলে যাতায়াতের ঝুঁকি কথা জেনেও নিরূপায় হয়ে তাদেরকে পৌঁছাতে হচ্ছে গৌন্তব্যে। অনেকেই আবার জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ছুটছে সপরিবারে।
গতকাল ৯ই মে বিকালে এমনই চিত্র চোখে পড়ে রাজধানী ঢাকার সাথে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১টি জেলার মানুষের যাতাযাতের প্রধান মাধ্যম রাজবাড়ী জেলার দৌলতদিয়া ফেরী ঘাটে।
ঘাট এলাকা ঘুরে জানা যায়, ভোর থেকেই ঢাকামুখী কর্মজীবী মানুষের চাপ রয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় যাত্রীরা চরম বিপাকে পড়েছে তারা। কিন্তু চাকুরী বাঁচানোর জন্য তাদেরকে কর্মস্থলে যেতেই হচ্ছে। তাই নিরূপায় হয়ে অনেকেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিচ্ছে মোটর সাইকেলে। অনেকেই আবার সপরিবারে ছুটছে। শত শত কিলোমিটার পথ এভাবেই তাদেরকে ছুটে চলতে হচ্ছে।
মাগুরা থেকে আসা মোটর সাইকেল চালক রাব্বী মিয়া বলেন, ঢাকাতে যেতেই হবে। কিন্তু রাস্তায় কোন গণপরিবহন নেই। তাই নিজের মোটর সাইকেলটা নিয়েই যাচ্ছি।
মোটর সাইকেলে ঢাকা যাওয়া আরেক দম্পতি বলেন, আমরা জানি এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত ঝুঁকির। তারপরও আমাদেরকে যেতেই হচ্ছে। গণপরিবহন খোলা থাকলে এই ঝুঁকিটা নিতাম না।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!