বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:০২ অপরাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
করোনা মোকাবেলায় দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পিএসসি’র নবনিযুক্ত চেয়ারম্যান সোহরাব হোসাইনের শপথ গ্রহণ শীতে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে, তাই প্রস্তুতি নিন : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্রে ১০ই অক্টোবর নাগাদ করোনায় মারা যেতে পারে ২লাখ ১৮হাজার লোক করোনার সংক্রমণ রোধে রাজবাড়ীতে ১৯৯৪ ব্যাচের উদ্যোগে মাস্ক বিতরণ বিশ্ব জুড়ে এক সপ্তাহে কোভিড-১৯ এ মৃত্যুর সংখ্যা অগ্রহণীয় ভাবে বেশি : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে আল্লামা আহমদ শফী’র জানাযাতে লাখ লাখ মানুষের অংশগ্রহণ শ্রীলংকা সফরের জন্য প্রস্তুতি॥ক্রিকেটাদের করোনা পরীক্ষা শুরু জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে অংশ নিচ্ছেন না মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ‘সরকারের গৃহীত পদক্ষেপে পেঁয়াজের বাজারে দাম কমতে শুরু করেছে’

ফরিদপুরে বকেয়া বেতনের দাবীতে ন্যাশনাল পলিটেকনিকের শিক্ষক-কর্মচারীদের মানববন্ধন

  • আপডেট সময় বুধবার, ৬ মে, ২০২০

॥মাহবুব হোসেন পিয়াল॥ বকেয়া বেতনের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে ন্যাশনাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ফরিদপুর শাখার শিক্ষক-কর্মচারীরা।

গতকাল ৫ই মে দুপুরে ফরিদপুর শহরের কমলাপুর এলাকায় প্রতিষ্ঠানের সামনের সড়কে এই মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়।

মানববন্ধন চলাকালে ন্যাশনাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ফরিদপুর শাখার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বলরাম চন্দ্র দে, গণিত শিক্ষক কানিজ ফাতেমা, কম্পিউটার শিক্ষক রফিকুল ইসলাম, প্রশাসনিক কর্মকর্তা লুৎফর রহমান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বক্তাগণ বলেন, আমরা এমনিতেই সামান্য বেতন পাই। সরকারী স্কেল অনুযায়ী আমাদের বেতন দেয়া হয় না। তার উপর আমাদের ৩ মাসের বেতন বাকী রয়েছে। এর ফলে এই করোনা সংকটের মধ্যে আমরা মানবেতর জীবনযাপন করছি। কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করলে তারা বলেছে, সেপ্টেম্বরের আগে তারা কোন বেতন পরিশোধ করতে পারবে না। এ অবস্থায় আমরা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এ ব্যাপারে ন্যাশনাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের পরিচালক(প্রশাসন) মোফাজ্জেল মৃধার সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমাদের বেসরকারী প্রতিষ্ঠান চলে ছাত্র ভর্তি ও তাদের বেতন দিয়ে। বর্তমানে করোনা সংকটের কারণে আমরা তার কোনটাই পাচ্ছি না। এ জন্য তাদের বেতন-ভাতা দেয়াও সম্ভব হচ্ছে না। আমাদের ফান্ডে কিছু টাকা ছিল, তা দিয়ে মার্চ মাসের বেতনের ৫০% পরিশোধ করেছি। এছাড়া লংকা-বাংলা ব্যাংকে আমাদের একটি এফডিআর আছে। আলোচনার মাধ্যমে সেটি ভেঙ্গে তাদেরকে কিছু টাকা দেয়া যেতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর