fbpx
বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০, ০৬:৫৭ অপরাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
পবিত্র শবে বরাতে মসজিদ, কবরস্থান ও মাজারে জনসমাগম না করতে ইফার আহ্বান কালুখালী থানা পুলিশের পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ পাংশায় এমপি জিল্লুল হাকিম ও তার পুত্র মিতুলের উদ্যোগে খাদ্য বিতরণ রাজবাড়ী সদরের বসন্তপুর ইউনিয়নের রঘুনাথপুরে ২শত পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ রাজবাড়ীতে ঢাকা থেকে পালিয়ে আসা করোনায় আক্রান্ত স্ত্রীসহ পুলিশ সদস্য আইসোলেশনে॥২টি গ্রাম লকডাউন এমপি জিল্লুল হাকিমের উদ্যোগে কালুখালীর কালিকাপুর ও রতনদিয়া ইউনিয়নে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজবাড়ী জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী ইরাদত আলীর উদ্যোগে শহীদওহাবপুরে খাদ্য বিতরণ বালিয়াকান্দির বহরপুরে ৩শতাধিক পরিবারের মধ্যে এমপি জিল্লুল হাকিমের খাদ্য বিতরণ কালুখালী ছাত্র কল্যাণ পরিষদের ত্রাণ বিতরণ বালিয়াকান্দিতে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ৪টি পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন ইউপি চেয়ারম্যান

নিজস্ব উদ্যোগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরী করে বিতরণ শুরু করছে রাজবাড়ী জেলা পুলিশ

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২৬ মার্চ, ২০২০

॥শেখ মামুন॥ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে নিজস্ব উদ্যোগে বিপুল পরিমাণ হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরী ও বিনামূল্যে বিতরণের কার্যক্রম শুরু করেছে রাজবাড়ী জেলা পুলিশ।
বেলা ১২টার দিকে পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান পিপিএম-বার জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদেরকে সাথে নিয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের গিয়ে জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগমের হাতে জেলা পুলিশের তৈরীকৃত হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ৫০ এম.এল-এর কয়েকটি প্লাস্টিকের বোতল তুলে দেন।
এ সময় সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ নুরুল ইসলামসহ জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। জেলা প্রশাসক এই হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরী ও বিনামূল্যে বিতরণের উদ্যোগ নেয়ায় পুলিশ সুপারসহ জেলা পুলিশকে ধন্যবাদ জানান। সময়োপযোগী এই উদ্যোগ নেয়ায় সিভিল সার্জনও পুলিশ সুপারকে ধন্যবাদ জানান। এরপর দুপুর থেকে রাজবাড়ী শহরের বিভিন্ন স্থানে পুলিশ সদস্যরা স্বেচ্ছাসেবীদের সহযোগিতায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করে। এছাড়াও মাস্ক ও সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করা হয়।
সরেজমিনে রাজবাড়ী পুলিশ লাইন্সের ড্রিলশেডে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরীর স্থানে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে এক বিশাল কর্মযজ্ঞ চলছে। বড় ড্রামে স্পিরিট (অ্যালকোহল), প্রচুর লেবু, কেমিক্যাল, নীল রংসহ নানা উপকরণ রয়েছে। ইউনিফর্ম পরা অর্ধশতাধিক পুলিশ সদস্য উপাদানগুলো দ্রবণ-মিশ্রণ, বোতলজাতকরণ, স্টিকার লাগানোসহ নানা কাজে ব্যস্ত রয়েছে। নিয়ম-কানুন মেনে যথাসম্ভব মানসম্পন্নভাবে হ্যান্ড স্যানিটাইজারগুলো তৈরী করা হচ্ছে।
এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, বর্তমানে হ্যান্ড স্যানিটাইজার খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও প্রয়োজনীয় একটি জিনিসে পরিণত হয়েছে। অথচ মানুষ প্রয়োজন অনুযায়ী বাজারে সেগুলো পাচ্ছে না। পেলেও অনেকেরই তা আবার ক্রয় করার সামর্থ্য নাই। তাই আমরা প্রাথমিকভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছি নিজেরাই ৫০ হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরী করে বিনামূল্যে বিতরণ করার। শহরের বিভিন্ন স্থানসহ বাড়ীতে বাড়ীতে গিয়ে সেগুলো বিতরণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!