fbpx
বুধবার, ০১ এপ্রিল ২০২০, ০৫:১৯ অপরাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
রাজবাড়ীর ৪টি হাসপাতালে পিপিই বিতরণ করলেন এমপি পুত্র মিতুল হাকিম ফরিদপুরের সাংবাদিকদের পিপিই দিলেন এমপি ইঞ্জিঃ মোশাররফ রাজবাড়ীতে হিজড়াদের মধ্যে খাদ্য ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ লকডাউনে মানবেতর জীবনযাপন করছে খেটে খাওয়া গোয়ালন্দের হতদরিদ্র মানুষ নির্বাচনী এলাকায় ১০ হাজার প্যাকেট খাবার বিতরণ করবেন এমপি কাজী কেরামত আলী বালিয়াকান্দি উপজেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভা কালুখালীতে জেলা পুলিশের তৈরী হ্যান্ড স্যানিটাইজার-মাস্ক বিতরণ রাজবাড়ী পৌরসভা এলাকার কর্মহীন ৩শত পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান কর্মহীন থাকা দরিদ্রদের মাঝে চন্দনী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মালেকের খাদ্য বিতরণ বালিয়াকান্দির আদিবাসী পল্লীতে পুলিশের তৈরী মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ

গোয়ালন্দ উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নৌকাকে বিজয়ী করতে ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে নেমেছে দলের নেতারা

  • আপডেট সময় বুধবার, ১১ মার্চ, ২০২০

॥আসহাবুল ইয়ামিন রয়েন॥ আসন্ন গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন সংক্রান্তে জেলা আওয়ামী লীগ, গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগী সংগঠনের সমন্বয়ে গতকাল ১০ই মার্চ সন্ধ্যায় নির্বাচনী মতবিনিময় ও যৌথ সভা গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজবাড়ী জেলা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী ইরাদত আলী।
গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ নূরুজ্জামান মিয়ার সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডাঃ শেখ আব্দুস সোবহান, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুল জব্বার, সহ-সভাপতি এডঃ গণেশ নারায়ণ চৌধুরী, সহ-সভাপতি হেদায়েত আলী সোহরাব, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মহসীন উদ্দিন বতু, জেলা কমিটির সদস্য খানখানাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ রেজাউল করিম লাল, গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র শেখ মোঃ নিজাম ও গোয়লান্দ উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোস্তফা মুন্সি প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এডঃ সফিকুল হোসেন।
এ সময় জেলা আওয়ামী লীগ, গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগ, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ, রাজবাড়ী পৌর আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, কৃষক লীগ, শ্রমিক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ ও কর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।
সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী ইরাদত আলী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, আসন্ন গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে আমাদের দলীয় প্রতীক নৌকার প্রার্থী মোস্তফা মুন্সিকে বিজয়ী করতে দলের সকল নেতাকর্মীকে নিরলসভাবে কাজ করতে হবে।
তিনি বলেন, সম্প্রতি বিভিন্ন ভাবে লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে ইতিপূর্বে দল থেকে যাদের বহিস্কার ও পদ থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে তারা দলের সিদ্ধান্তের বিপক্ষে যেয়ে নির্বাচনে প্রাথী হয়েছেন। তারা এখন বিভিন্ন ভাবে দলের সভাপতি শেখ হাসিনার মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে নিয়ে বিভিন্ন ধরনের মিথ্যা কথা বলে দলে বিভ্রান্তি সৃষ্টির লক্ষ্যে রাজবাড়ী-১ আসনের সদস্যের নামের অপব্যবহার করে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গকারী একজন প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারনা চালাচ্ছেন। যা মটেও কম্য নয়।
এ বিষয়ে সম্পর্কে তিনি দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের স্বাক্ষরিত একটি পত্র পাঠ করে শোনান। উক্ত পত্রে উল্লেখ করা হয়, দলের বিভিন্ন পদে থেকে যারা নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিরোধীতা করে অন্য কারো নির্বাচনী প্রচারণায় অংশগ্রহণ করলে তাকে দল থেকে বহিস্কার করতে বলা হয়েছে। সুতরাং দলের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারনায় অংশগ্রহণ করতে হবে। যদি কোন নেতাকর্মী এর বিরোধীতা করে তবে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আর সেজন্য সকলকে মনে রাখতে হবে ব্যক্তির উর্দ্ধে দল- আর তার উর্দ্ধে দেশ। দলের সিদ্ধান্তকেই যদি দলে থাকা ব্যক্তি না মানে তবে তার দলে থাকার দরকার নেই।
এছাড়াও তিনি তার বক্তব্যে গোয়ালন্দ উপজেলার চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে দলের সকল নেতাকর্মীকে জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে সমন্বিত ভাবে গঠিত কমিটির মাধ্যমে নৌকা প্রার্থী মোস্তফা মুন্সির পক্ষে কাজ করার আহবান জানান।
এছাড়াও সভার সভাপতিসহ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতিদের মধ্যে ডাঃ শেখ আব্দুস সোবহান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুল জব্বার, এডঃ গণেশ নারায়ণ চৌধুরী, হেদায়েত আলী সোহরাব, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মহসীন উদ্দিন বতু, সদস্যদের মধ্যে খানখানাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রেজাউল করিম লাল, গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র শেখ মোঃ নিজাম তাদের বক্তব্যে বলেন, আমার সকলে অবশ্যই শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থী যিনি নৌকা প্রতীক পেয়েছেন তার পক্ষে কাজ করবো। আমাদের সকলের কাছে সবার আগে দল ও দলের সভাপতি বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। সুতরাং নির্বাচনে যেখানে নৌকা প্রতীক থাকবে আমরা তার জন্য কাজ করব। তারপরেও যদি দলীয় সিদ্ধান্তের বিরোধী হয়ে নৌকা প্রার্থীর বিরোধীতা করে তবে তার দলে থাকার কোন প্রয়োজন নেই বলে উল্লেখ করেন।
এছাড়াও দলের যেই হোক না কেন সে যদি নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে কাজ করবে তার বিরুদ্ধে দলীয় ফোরামে গঠনতন্ত্র মোতাবেক কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করার হুশিয়ারী প্রদান করেন বক্তাগণ।
সভায় জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সমন্বয়ে ৪টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনার জন্য দায়িত্ব প্রদান করা হয়।
সভায় প্রয়াত উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ নূরুল ইসলামের স্মরণে ১মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!