fbpx
শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ০৭:৪৯ পূর্বাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
পাংশায় সামাজিক দূরত্ব বজায় নিশ্চিতকরণে স্থানীয় প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর যৌথ অভিযান করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে গোয়ালন্দে পুলিশের কার্যক্রম পরিদর্শনে অতিরিক্ত ডিআইজি বালিয়াকান্দিতে ভিক্ষুকদের বাড়ী বাড়ী খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিলেন ইউএনও রাজবাড়ীতে উত্তরণ ও মিরা ফাউন্ডেশনের খাদ্য বিতরণ করোনা সন্দেহে পাংশা হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে একজন ভর্তি রাজবাড়ী পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর তিতুর খাদ্য বিতরণ রাজবাড়ী জেলার ৫টি উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ২৪জনের জরিমানা পাংশায় ভ্রাম্যমান আদালতে ট্রাক ড্রাইভারসহ দুই মোটর সাইকেল আরোহীকে জরিমানা রাজবাড়ী পৌরসভার ৫০ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মীর মধ্যে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে রাজবাড়ীর বিভিন্ন বাজারে যৌথ বাহিনীর অভিযান

পাংশায় আ’লীগের প্রবীণ নেতা হাসান বিশ্বাসের শয্যাপাশে এমপি খোদেজা

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

॥মোক্তার হোসেন॥ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি এডভোকেট খোদেজা নাসরীন আক্তার হোসেন গত ২৪শে ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা মোঃ হাসান আলী বিশ্বাসকে দেখতে তার বাসায় যান।
তিনি সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে হাসান আলী বিশ্বাসের পাংশা শহরের বিষ্ণুপুর গ্রামের বাড়ীতে গিয়ে তার চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন। সেখানে প্রায় ১ঘন্টা ব্যাপী সময় অবস্থান করে হাসান আলী বিশ্বাসের চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন তিনি। এ সময় হাসান আলী বিশ্বাসের উন্নত চিকিৎসার ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দেন তিনি।
এদিকে অসুস্থ হওয়ার পর থেকে হাসপাতাল ও নিজ বাড়ীতে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ, আত্মীয়-স্বজন ও শুভাকাঙ্খিরা হাসান আলী বিশ্বাসের চিকিৎসার খোঁজখবর নিচ্ছেন। হাসান আলী বিশ্বাসের বয়স এখন ৭০ বছরের ঊর্ধে। তিনি পাংশা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান। সাধারণ সম্পাদক থাকাকালীন তার অসুস্থতার মধ্যেই গত ২৪শে ফেব্রুয়ারী পাংশা সরকারী কলেজ মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন সম্পন্ন হয়েছে। অসুস্থতার কারণে সম্মেলন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেন নাই তিনি। দীর্ঘ একটানা ৩৬ বছর পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন এই বর্ষিয়ান নেতা। এর আগে পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। ছাত্রজীবনে রাজবাড়ী সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের নির্বাচিত কমনরুম সেক্রেটারী, পরবর্তীতে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং ’৬৯-এর গণঅভ্যুত্থান আন্দোলনে ছাত্রসংগ্রাম পরিষদের পাংশার সভাপতির দায়িত্ব পালনসহ মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক হিসেবে কাজ করেছেন তিনি। আওয়ামী লীগের একজন ত্যাগী নেতা হিসেবে এলাকায় তার সুনাম ও সুপরিচিত রয়েছে। বিগত বিএনপি-জামাত জোট সরকারের সময়ে তিনি শারীরিক ভাবে নির্যাতিত হন। পাংশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পরও তিনি তার নির্যাতনের প্রতিশোধমূলক কিছু করেননি। চলতি মাসের ৪ফেব্রুয়ারী সকালে নিজ বাড়ীতে স্ট্রোক করলে তাকে ফরিদপুর ডায়াবেটিস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে সপ্তাহ ব্যাপী চিকিৎসা শেষে কিছুটা সুস্থ হলে তাকে হাসপাতাল থেকে রিলিজ দেওয়া হয়। চিকিৎসকের পরামর্শ মোতাবেক নিজ বাড়ীতে তার চিকিৎসা চলছে। তার বাম হাত ও বাম পা এখনও স্বাভাবিক ভাবে কাজ করছে না। উন্নত চিকিৎসা হলে পুরোপুরি সুস্থ হওয়ার আশা রয়েছে তার মনে। এ পর্যায়ে পারিবারিক ভাবে তার উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। আরোগ্যলাভে সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!