fbpx
শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ০৭:১৮ পূর্বাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
রাজবাড়ীতে ফার্মেসী ছাড়া কোন দোকান সন্ধ্যা ৬টার পরে খোলা রাখা যাবে না পাংশায় কর্মহীন দরিদ্র মানুষের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিচ্ছেন আ’লীগ নেতা মিতুল দেশ বরেণ্য কবি ও ছড়াকার নাসের মাহমুদের ইন্তেকাল র‌্যাব-৮ বরিশাল কর্তৃক ১১টি জেলায় জেলে-বেদে ও আত্মসমর্পনকৃত জলদস্যুদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে রাজবাড়ীর ১নং রেলগেট বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ রাজবাড়ী পৌরসভার উদ্যোগে মসজিদে জীবাণুনাশক বালিয়াকান্দির জঙ্গল ইউনিয়নে এমপি জিল্লুল হাকিমের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ রাজবাড়ী পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের ১১৫০ জনের মধ্যে আটা বিতরণ রাজবাড়ীর শহীদওহাবপুর ইউনিয়নে ৩শত দরিদ্র পরিবারের মধ্যে খাদ্য ও মাস্ক বিতরণ রাজবাড়ীতে সিপিবি’র ব্যবস্থাপনায় দুস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণ চলছে

ভারতের মেদিনীপুরের উদ্দেশ্যে রাজবাড়ী স্টেশন থেকে ওরশ স্পেশাল ট্রেন ছেড়ে গেল

  • আপডেট সময় রবিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

॥স্টাফ রিপোর্টার॥ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মেদিনীপুর জোড়া মসজিদে অনুষ্ঠিতব্য ১১৯তম বার্ষিক পবিত্র ওরশ শরীফে যোগ দিতে ২৩২৩ জন যাত্রী নিয়ে রাজবাড়ী থেকে ছেড়ে গেছে ‘ওরশ স্পেশাল ট্রেন’। গতকাল ১৫ই ফেব্রুয়ারী রাত সোয়া ১০টায় ট্রেনটি রাজবাড়ী রেলওয়ে স্টেশন ত্যাগ করে।
আঞ্জুমান-ই-কাদেরীয়া রাজবাড়ীর ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত ভারতীয় রেলওয়ের সরবরাহকৃত ২৪টি বগি সম্বলিত ওরশ স্পেশাল ট্রেনটিতে ১২২০ জন পুরুষ, ৯৩৩ জন নারী ও ১১০ জন শিশু ওরশ যাত্রী রয়েছেন। ওরশ শেষে আগামী ১৯শে ফেব্রুয়ারী রাতে ট্রেনটি রাজবাড়ী ফিরে আসবে।
ট্রেনটি ছেড়ে যাওয়ার পূর্বে ওরশ যাত্রীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী, জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম, পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান পিপিএম-বার এবং ট্রেন লিডার রাজবাড়ী আঞ্জুমান-ই-কাদেরীয়া সভাপতি কাজী ইরাদত আলী বক্তব্য রাখেন। এ সময় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার শাখার উপ-পরিচালক মোঃ বাকাহীদ হোসেনসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।
এ ছাড়াও স্টেশন মাষ্টারের অফিস কক্ষে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত দোয়া অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম, পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান পিপিএম-বার এবং ট্রেন লিডার কাজী ইরাদত আলী বক্তব্য রাখেন। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন রাজবাড়ী খানকা শরীফ বড় মসজিদের ইমাম মাওলানা মোঃ শাহজাহান।
আগামীকাল ১৭ই ফেব্রুয়ারী দিবাগত রাতে মেদিনীপুরের জোড়া মসজিদে নূর নবী হযরত মুহাম্মদ(সাঃ) এর ৩৩তম ও গাউস উল আযম হযরত আব্দুল কাদের জিলানী(আঃ) এর ২০তম অধস্তন পবিত্র বংশধর আলী আব্দুল কাদের সামশুল কাদের হযরত সৈয়দ শাহ মোর্শেদ আলী আল কাদেরী আল হাসানী ওয়াল হুসাইনী আল বাগদাদী আল মেদিনীপুরী(আঃ) মশহুর নাম “মওলাপাক”-এর এই ১১৯তম বার্ষিক ওরশ শরীফ উদযাপিত হবে। পবিত্র ওরশ শরীফ পরিচালনা করবেন মেদিনীপুরের পীর কাদেরীয়া তরীকার সজ্জাদানসীন বড় হুজুর পাক হযরত সৈয়দ শাহ্ রশিদ আলী আল কাদেরী আল হাসানী ওয়াল হুসাইনী আল বাগদাদী আল মেদিনীপুরী মাদ্দাজিল্লুহুল আলী। ওরশ শরীফ একই দিনে রাজবাড়ী শহরের খানকায়ে কাদেরীয়া বড় মসজিদ অনুষ্ঠিত হবে।
উল্লেখ্য, বাংলাদেশ ও ভারত সরকার যৌথভাবে ১৯০২ সাল থেকে এই ওরশ স্পেশাল ট্রেনটি চলাচলের ব্যবস্থা করে আসছে। এ জন্য আঞ্জুমান-ই-কাদেরীয়া রাজবাড়ীর পক্ষ থেকে উভয় সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়েছে।
এদিকে ঢাকাস্থ ভারতীয় হাই কমিশনের পক্ষ থেকে গত ১২ই ফেব্রুয়ারী এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, বাংলাদেশের রাজবাড়ী থেকে উক্ত ওরশে অংশগ্রহণের জন্য ভারতীয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ২৪টি বিশেষ বগি সরবরাহ করেছে।
মেদিনীপুরের ওরশ শরীফে যোগদানের জন্য রাজবাড়ীসহ বিভিন্ন স্থান থেকে বিপুল সংখ্যক মানুষ সড়ক পথেও ভারতে যাচ্ছে।
দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড় ঃ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মেদিনীপুরের ওরশে যোগ দিতে যাওয়া বিশেষ ট্রেনটি দেখতে রাজবাড়ী রেল স্টেশনে দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড় ছিল। গতকাল ১৫ই ফেব্রুয়ারী বিকালে সুসজ্জিত ট্রেনটি রাজবাড়ী রেলস্টেশনে এসে পৌঁছালে অপেক্ষমান আঞ্জুমান-ই-কাদেরীয়ার(মেদিনীপুরের) হাজার হাজার ভক্ত ট্রেনটিকে স্বাগত জানায়। এরপর থেকে ছেড়ে যাওয়ার আগ পর্যন্ত নারী-পুরুষ, শিশু নির্বিশেষে হাজার হাজার ভক্ত ট্রেনটিকে দেখতে আসে। এ সময় আবেগাপ্লুত ভক্তরা ট্রেনটিকে স্পর্শ, চুমু খাওয়া ও নজরানা দিতে থাকে।
রাজবাড়ী রেলওয়ে স্টেশন থেকে ওরশ স্পেশাল ট্রেন যাত্রা উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার বিকাল থেকে পুলিশের পক্ষ থেকে শহরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!