শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ০৮:৪৭ পূর্বাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুনের ইন্তেকাল রাজবাড়ীতে রাস্তায় ৫স্তরের ব্যারিকেড দিয়ে ৩শ বাসিন্দাকে অবরুদ্ধ করলো রেলওয়ের এ.ই.এন ! রাজবাড়ী জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে॥এ পর্যন্ত শনাক্ত ৬৬৬জন পাংশার ভাইস চেয়ারম্যান জালাল বিশ্বাস সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত রাজবাড়ী সদরের দাদশী ইউপিতে ৭শত দরিদ্র পরিবারের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ সহায়তার চাল-ডাল বিতরণ বালিয়াকান্দির দুইটি ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কার্যক্রম উদ্বোধন র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ঝিনাইদহে সেনাবাহিনী পরিচালিত মেডিকেল ক্যাম্পে গর্ভবতী মহিলাদের চিকিৎসা প্রদান কালুখালীতে আদিবাসী শিক্ষার্থীদের মধ্যে বাইসাইকেল ও উপ-বৃত্তির অর্থ বিতরণ সাংবাদিক ওয়াহিদ মিলটনের মাতা আম্বিয়া বেগমের আজ প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী

দলের প্রতিটি পর্যায়ে দূষিত রক্ত বের করে দেয়া হবে ঃ ওবায়দুল কাদের

  • আপডেট সময় রবিবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০১৯

॥স্টাফ রিপোর্টার॥ দলের প্রতিটি পর্যায়ে দূষিত রক্ত বের করে বিশুদ্ধ রক্ত সঞ্চালন করা হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
তিনি বলেন, ‘দল থেকে আজকে দূষিত রক্ত বের করে দিতে হবে, বিশুদ্ধ রক্তের সঞ্চালন করতে হবে। যে শুদ্ধি অভিযান শুরু হয়েছে তা থেমে যায়নি। সকলের রিপোর্ট আমাদের কাছে রয়েছে, ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
ওবায়দুল কাদের গতকাল ২১শে ডিসেম্বর রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলনের কাউন্সিল অধিবেশনে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে কাউন্সিল অধিবেশন উদ্বোধন করেন দলের সভাপতি শেখ হাসিনা।
অপরাধীরা নজরদারিতে রয়েছে আওয়ামী লীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘যারা লুটপাট, জমি দখল, চাঁদাবাজি করে তাদের আমাদের দরকার নেই। তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন সারা বাংলাদেশে শুরু হয়েছে। এ অভিযান চলবে। তারা নজরদারিতে আছে। দলের প্রতিটি পর্যায়ে দূষিত রক্ত বের করে বিশুদ্ধ রক্ত সঞ্চালন করা হবে।’
ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকারের মধ্যে দলকে গুলিয়ে ফেলা যাবে না, দল শক্তিশালী না হলে সরকার শক্তিশালী হবে না। কিছু-কিছু জায়গায় মাঝে-মধ্যে দ্বন্দ্ব-কলহ দেখা যায়। এসব বিরোধ বন্ধ করতে হবে।
বিতর্কিতদের দলে জায়গা নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদের হাজার-হাজার, লক্ষ-লক্ষ নেতাকর্মী। বিতর্কিত লোকজন আমাদের দরকার নেই। শীতের অতিথি পাখিরা সুসময়ে আসে, দুঃসময়ে তারা থাকবে না। সেই মৌসুমী পাখিদের আমাদের দরকার নেই।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বাংলাদেশ ও জনগণকে বাঁচাতে এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে। আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হলে দলের নেতাকর্মীদের বাঁচাতে হবে। আর বাংলাদেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে হলে শেখ হাসিনার নেতৃত্বের বিকল্প নেই।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠার পর থেকে বারবার ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছে। কিন্তু কখনো ষড়যন্ত্র করেনি। দলে অপ্রয়োজনীয় কারও দরকার নেই। কোনো কোন্দল থাকলে তা দূর করতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর