মঙ্গলবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:৪৭ পূর্বাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
পদ্মায় অবৈধ বালু উত্তোলন-ট্রাক ও বলগেট থেকে চাঁদাবাজী বন্ধের দাবী দুই এমপির অনলাইন নিউজ পোর্টালের নিবন্ধন আগামী সপ্তাহ থেকে শুরু হবে — তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ রাজবাড়ী পৌরসভায় সোশ্যাল মোবিলাইজেশন ক্যাম্পেইন রাজবাড়ীর আলীপুরে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীকে হত্যার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ গোয়ালন্দ উপজেলার ৪ জন প্রাথমিক শিক্ষক শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে নির্বাচিত ৯৯৯ থেকে ফোন পেয়ে বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করলো পুলিশ গোয়ালন্দে হেরোইনসহ নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার জাতীয় দিবস উপলক্ষে আমিরাতকে সাজানো হয়েছে অপরূপ সাজে এনজিও ফাউন্ডেশন দিবস উপলক্ষে ফরিদপুরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত এনজিও ফাউন্ডেশন দিবস উপলক্ষে রাজবাড়ীতে আলোচনা সভানুষ্ঠিত

রাজবাড়ী ডিবি-র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ১৮৪১ বোতল ফেন্সিডিলসহ ৪জন গ্রেফতার

  • আপডেট সময় শনিবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৯

॥স্টাফ রিপোর্টার॥ রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে গতকাল ১৫ই নভেম্বর ডিবি ও র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ১৮৪১ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধারকরাসহ মাদক পাচারকারী চক্রের ৪জনকে গ্রেফতার হয়েছে।

এ বিষয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট ঃ-
রাজবাড়ী ডিবি’র অভিযান ঃ রাজবাড়ী ডিবি’র একটি দল গতকাল ১৫ই নভেম্বর সকাল ১০টার দিকে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে রাজবাড়ী সদর উপজেলার বাগমারা সাগর এগ্রো ফুড লিঃ-এর গেটের সামনে গাড়ীর অপেক্ষায় থাকা মোঃ ইয়াছিন আলী রানা(২৮) নামক ১ব্যক্তিকে চার বস্তা(৯০০ বোতল) ফেন্সিডিলসহ গ্রেফতার করেছে।
গ্রেফতারকৃত ইয়াছিন চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা গোকুলখালী ভালাইপুর গ্রামের আঃ রশিদ মোল্লার ছেলে।
এ বিষয়ে গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টায় জেলা ডিবি’র কার্যালয়ে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জেলা গোয়েন্দা শাখার ইনচার্জ(ওসি) মোঃ ওমর শরীফ সাংবাদিকদের জানান, পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমানের নির্দেশনায় ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(অপরাধ) মোঃ ফজলুল করিমের তত্ত্বাবধানে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের বাগমারা সাগর এগ্রো ফুড লিঃ-এর গেটের সামনে ৪টি বস্তা নিয়ে গাড়ীর অপেক্ষায় থাকা ওই ব্যক্তির বস্তায় তল্লাশী করে বস্তার মধ্যে থাকা ৯শত বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার এবং তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে ডিবি বাদী হয়ে গ্রেফতারকৃত ইয়াছিন আলী রানার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে রাজবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করেছে।
র‌্যাবের অভিযান ঃ অপরদিকে র‌্যাব-৮ ফরিদপুরের একটি দল গতকাল ১৫ই নভেম্বর দুপুরে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে রাজবাড়ী সদর উপজেলার চরলক্ষীপুর এলাকায় একটি মাইক্রোবাস তল্লাশী করে ৯৪১ বোতল ফেনসিডিলসহ ৩জনকে গ্রেফতার করেছে।
র‌্যাব-৮ ফরিদপুর ক্যাম্পের উপ-পরিচালক মেজর আব্দুল্লাহ আল মঈন হাসান গতকাল শুক্রবার প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, র‌্যাব-৮, সিপিসি-২ ফরিদপুর ক্যাম্প গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, এক মাদক ব্যবসায়ী চক্র রাজবাড়ী হয়ে একটি ফেন্সিডিলের চালান বিক্রির জন্য নিয়ে যাবে। এ প্রেক্ষিতে ফরিদপুর র‌্যাব ক্যাম্পের একটি আভিযানিক দল গতকাল ১৫ই নভেম্বর দুপুর ১টা ১০ মিনিটের সময় রাজবাড়ী সদর থানাধীন চরলক্ষীপুর গ্রামস্থ জনৈক মোঃ আনসার সরদারের বসত বাড়ির সামনে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের উপর একটি মাইক্রোবাস তল্লাশী করে ৯৪১ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার এবং মোঃ নাসির উদ্দিন(৩০), পিতা-মৃত মনির হোসেন, সাং-সরদার পাড়া, মোঃ রুবেল(৩২), পিতা-মোঃ মতিউর রহমান, সাং-বিটিশীল মন্দির, উভয় থানা-মুন্সীগঞ্জ সদর, জেলা-মুন্সীগঞ্জ ও মোঃ মর্তুজা আলম(৩৬), পিতা-মোঃ নজরুল ইসলাম, সাং-হাজারবিঘি, থানা-শিবগঞ্জ, জেলা-চাপাইনবাবগঞ্জকে গ্রেফতার করে এবং অভিযানকালে র‌্যাব সদস্যরা মাদক পাচারকারী চক্রের হেফাজত থেকে মাদক ক্রয়-বিক্রির কাজে ব্যবহৃত ৪টি সিমকার্ডসহ ৩টি মোবাইল ফোন, নগদ ১৫হাজার ৫০০ টাকা এবং ফেন্সিডিল পরিবহনে ব্যবহৃত ১টি মাইক্রোবাস জব্দ করা হয়।
পরবর্তীতে জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায় যে, ধৃত উক্ত বিপুল পরিমান ফেন্সিডিল বিক্রির উদ্দেশ্যে মাইক্রোবাসে করে পরিবহন করেছিলো এবং তার দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধ মাদক দ্রব্য ফেন্সিডিল চাপাইনবাবগঞ্জ জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা হতে ক্রয় করে দেশের বিভিন্ন স্থানের মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট পাইকারী বিক্রি করে থাকে। উদ্ধারকৃত ফেন্সিডিল ও অন্যান্য আলামতসহ গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে র‌্যাব বাদী রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।
উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়ক, দৌলতদিয়া-খুলনা জাতীয় মহাসড়ক এবং দৌলতদিয়া-পোড়াদহ রেলপথ বিভিন্ন ধরণের মাদক পাচারের রুট হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। মাদক পাচারকারী সিন্ডিকেট সড়ক পথে বিভিন্ন যানবাহনে এবং রেলপথের বিভিন্ন ট্রেনে প্রতিদিন বিপুল পরিমান মাদকদ্রব্য পাচার করাসহ রাজবাড়ী জেলায় আমদানী করছে। সম্প্রতি সড়ক, মহাসড়ক ও ট্রেনসহ রাজবাড়ী জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে বিপুল পরিমান ফেনসিডিল, ইয়াবা, হোরোইন, মদ ও শুকনা গাঁজাসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য উদ্ধার এবং পাচারকারী বা বিক্রেতা পুরুষ-নারী গ্রেফতার হলেও মাদক চোরাকারবারী সিন্ডিকেটের গডফাদাররা গ্রেফতার হচ্ছে না। এ ছাড়াও মাদক উদ্ধার সংক্রান্তে মামলায় বহনকারী অভিযুক্ত হলেও মামলার তদন্তে গডফাদারকে চিহিৃত করে আসামী না করা করায় দেশ থেকে মাদকদ্রব্য নির্মূল হচ্ছে না।
সচেতন মহল দেশ ও সমাজ থেকে মাদকদ্রব্য নির্মূলে চুনো পুঁটি মাদক বিক্রেতার পাশাপাশি গডফাদারদেরকে গ্রেফতারের মাধ্যমে বিচারের মুখোমুখি করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!