fbpx
মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৫:৪৪ অপরাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
র‌্যাবের অ‌ভিযানে উইনার গ্রু‌পের মা‌লিক আব্দুল্লাহ আল-মামুন ওরফে কেসমত গ্রেফতার পাপিয়াদেরমত লোক আ’লীগে থাকলে তাদেরকে ঝেটিয়ে বিদায় করতে হবে —আব্দুর রহমান বালিয়াকান্দিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ও প্রধানদের সাথে ডিসি’র মতবিনিময় সভা রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের মাসিক সভা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ জানতে হলে বই পড়তে হবে —জেলা আ’লীগের সদস্য আশিক মাহমুদ মিতুল ডিউটিরত অবস্থায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে রাজবাড়ী থানার এস.আই আরিফের মৃত্যু বহরপুরে ঔষধি উদ্ভিদের বাগান পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক প্যানেলের মাধ্যমে নিয়োগের দাবীতে রাজবাড়ীতে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন পাংশা সরকারী কলেজের পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দকে শুভেচ্ছা কালুখালী উপজেলা প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে মিতুল হাকিমের মতবিনিময় অনুষ্ঠিত

রাজবাড়ীর কালুখালীতে কৃষক জব্বার হত্যা মামলায় আসামী আরজুর মৃত্যুদন্ড॥৬জনের বিভিন্ন মেয়াদী জেল জরিমানা

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

॥শিহাবুর রহমান॥ কালুখালী উপজেলার মৃগী ইউনিয়নের দেওয়ালী গ্রামের কৃষক জব্বার মোল্লা(৫৫) হত্যা মামলার রায়ে অভিযুক্ত আরজু মোল্লাকে মৃত্যুদন্ড ও ৬জনের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড ও অর্থদন্ডের আদেশ প্রদান করেছে আদালত।
গতকাল ৯ই সেপ্টেম্বর বিকেলে রাজবাড়ীর জেলা ও দায়রা জজ নিলুফার সুলতানা জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণাকালে দন্ডপ্রাপ্তরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। মেহেদী গাছের ডাল কাটাকে কেন্দ্র করে ২০১৫ সালের ২৭শে সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ১০টার দিকে কালুখালী উপজেলার মৃগী ইউনিয়নের দেওয়ালী গ্রামে জব্বার মোল্লাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করা হয়।
মৃত্যুদন্ড ব্যক্তির নাম আরজু মোল্লা(৩৬)। সে দেওয়ালী গ্রামের খোরশেদ মোল্লার ছেলে। সাজাপ্রাপ্ত অন্যান্য আসামীরা হলো ঃ খোরশেদ মোল্লা(৬০) ও তার অপর ছেলে রাশেদ মোল্লা(২২), মেয়ে রোজিনা(৩৫), মেয়ে জামাই এরশাদ বিশ^াস(৪০), আপন বড় ভাই শহর আলী (৬৫) ও চাচাতো ভাই বেল্লাল মোল্লা (৪৫)। এদের মধ্যে শহর আলী একজন গেজেটভূক্ত মুক্তিযোদ্ধা।
আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৬শে সেপ্টেম্বর সকালে রোজিনার ছেলে হৃদয়(১২) দেওয়ালী গ্রামের জলিল মোল্লার বাড়ীর মেহেদী গাছের ডাল কাটে। এ সময় জলিল মোল্লা হৃদয়কে ডাল কাটতে নিষেধ করায় সে চলে আসে। পরে ডাল কাটতে না দেওয়ায় হৃদয়ের মা রোজিনা ও জলিল মোল্লার স্ত্রী হামিদা বেগম এবং মেয়ে আরিফা বেগমের মধ্যে ঝগড়া হয়। এ নিয়ে ওই দিন দুপুরে উভয় পরিবারের মধ্যে মারামারিও হয়। পরদিন রাতে রোজিনা ও তার পরিবারের লোকজন লাঠিশোঠা এবং ধারালো অস্ত্র নিয়ে জলিল মোল্লার বাড়ীতে প্রবেশ করলে সে দৌড়ে পাশর্^বতী এছেম আলীর মেহগনির বাগানের মধ্যে গিয়ে আশ্রয় নেয়। এরপর কোন কিছু বোঝার আগেই তারা তাকে ওই বাগানের মধ্যে এলোপাতাড়ীভাবে মারপিট শুরু করে। এ খবর পেয়ে জলিল মোল্লার ভাই জব্বার মোল্লা ও তার পরিবারের লোকজন সেখানে যান এবং প্রতিপক্ষের লোকজনের হাত থেকে তাকে রক্ষা করার চেষ্টা করেন। এ সময় প্রতিপক্ষের আরজু মোল্লা ধারালো ছ্যান দিয়ে জব্বার মোল্লার ঘাড়ে কোপ মারে। এতে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে অন্যান্যরা তাকে এলোপাতাড়ীভাবে মারপিট করলে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হোন।
এ ঘটনায় নিহত জব্বার মোল্লার ছেলে নাজমুল মোল্লা বাদী হয়ে কালুখালী থানায় ৭জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। কালুখালী থানার মামলা নং-৯, তাং-২৮/৯/২০১৫ইং। ধারাঃ ১৪৩/৪৪৭/৩২৩/৩২৪/৩২৬/৩০৭/৩০২/৩৪ দঃ বিঃ। পরবর্তীতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা একই বছরের ৩১শে ডিসেম্বর আদালতে ৭জনের নামে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।
গতকাল ৯ই সেপ্টেম্বর এ হত্যা মামলার রায়ে বিজ্ঞ আদালত আরজু মোল্লাকে মৃত্যুদন্ড প্রদান করেন। এছাড়া রোজিনা এরশাদ বিশ^াস, খোরশেদ মোল্লা ও রাশেদ মোল্লাকে ৩বছরের সশ্রম কারাদন্ড, ২০হাজার টাকা অর্থদন্ড, অনাদায়ে আরো ৬মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং বেল্লাল মোল্লা ও শহর আলীকে ১বছরের সশ্রম কারাদন্ড, ২০হাজার টাকা অর্থদন্ড এবং অনাদায়ে ১মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। রাষ্ট্রপক্ষে পিপি এডঃ মোঃ উজির আলী শেখ মামলা পরিচালনা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!