বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০২:১১ অপরাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
লম্পট তারিকুলের বিচার ও মা’কে ফিরে পেতে চায় প্রতিবন্ধী সন্তানরা॥ডিসির নিকট স্মারকলিপি প্রদান বালিয়াকান্দিতে বাজারে পেঁয়াজের দাম মনিটরিং করলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব তুরস্কের বিরুদ্ধে এবার যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা পাংশায় দুইটি সংস্থা পরিদর্শন করলেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক পাংশার হাবাসপুরে বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস পালিত জেন্ডার ভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধে পুরুষদের দায়িত্ব-ভূমিকা শীর্ষক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত কালুখালীতে জব্দকৃত আড়াই মণ ইলিশ মাছ এতিমখানায় বিতরণ দলীয় সমর্থক আবু ডাক্তারের মৃত্যুতে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের শোক রাজবাড়ীতে বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস ও স্যানিটেশন মাস উপলক্ষে র‌্যালী-হাত ধোয়া প্রদর্শনী ও আলোচনা সভা রাজবাড়ীতে বিশ্ব সাদা ছড়ি নিরাপত্তা দিবস পালিত

রাজবাড়ী সদর উপজেলার কল্যাণপুরে পূর্ব শক্রতায় দিবালোকে যুবকের দুই হাত কর্তন করলো দুর্বৃত্ত দল

  • আপডেট সময় সোমবার, ৫ আগস্ট, ২০১৯

॥শিহাবুর রহমান/হেলাল মাহমুদ॥ রাজবাড়ী সদর উপজেলার কল্যাণপুরে গতকাল ৪ঠা আগস্ট বিকেল ৩টার দিকে পূর্ব শত্রুতার জেরে মোবাইলে ডেকে নিয়ে প্রকাশ্য দিবালোকে শাহিন খান(৩০) নামে এক যুবকের কুনই থেকে দুই হাত ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে কেটে ছিন্ন করে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা।
আহত শাহিন খান একই গ্রামের হাসেম খানের ছেলে। ঘটনার পর গুরুতর অবস্থায় আহত শাহিন খানকে চিকিৎসার জন্য প্রথমে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদানের পর ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। পরে সেখান থেকে সন্ধ্যার পূর্বে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেছে পরিবারের লোকজন।
শাহিনের বড় ভাই হোসেন খান জানান, আমার ভাই শাহীন একজন খামারী। নিজ বাড়ীতে হাঁস ও গরুর খামার করে সে জীবিকা নির্বাহ করে। সম্প্রতি মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় এলাকার চিহ্নিত কিছু মাদক কারবারী আমার ভাই শাহিনের ওপর ক্ষিপ্ত ছিল। গতকাল ৪ঠা আগস্ট বিকেল ৩টার দিকে বাড়ী থেকে একই গ্রামের ইসমাইল আমার ভাই শাহিনকে মোবাইলে ডেকে নিয়ে কল্যাণপুর দাখিল মাদ্রাসা এলাকা নিয়ে যায়। সেখানে ডেকে নেয়ার পর মাদ্রাসার সামনে ফাঁকা জায়গায় ইসমাইল, ইদ্রিস, শাহ আলম, শাহিন ও লালুসহ আরো কয়েকজন ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আমার ভাইয়ের কুনই থেকে দুই হাত কেটে ছিন্ন করে ফেলে এবং বাম পায়ের গোড়ালীর রগ কেটে দেওয়াসহ কুপিয়ে থেতলে রেখে পালিয়ে যায়। বিকেল পৌনে ৪টার দিকে স্থানীয় লোকজন তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। পরে সেখান থেকে সন্ধ্যার পূর্বে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়।
অভিযুক্ত ইসমাইলের মা জানান, আমার ছেলে ইসমাইল ও শাহিন দুই বন্ধু। গত ২৪শে জুন শাহিন আমার ছেলে ইসমাইলকে তার শ^শুর বাড়ীতে ডেকে যায়। সেখানে শাহিন তার স্ত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্কের অভিযোগ এনে আমার ছেলে ইসমাইলকে মারপিট করে ছিলো। তবে আজকে কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে সেটা আমরা বলতে পারবো না।
স্থানীয় গ্রামবাসী ও পুলিশের সাথে কথা বলে জানা যায়, শাহিনের দুই স্ত্রী রয়েছে। প্রথম স্ত্রীর সাথে ইসমাইলের পরকীয়া সম্পর্ক রয়েছে বলে গত জুন মাসে শাহিন মোটর সাইকেলযোগে ইসমাইলকে তার নিজবাড়ী থেকে উঠিয়ে নিয়ে খানখানাপুর ইউনিয়নের রহিমপুর গ্রামে শ^শুর বাড়ীতে নিয়ে যায়। সেখানে শাহিন বেদমভাবে ইসমাইলকে মারপিট করে। এছাড়াও শাহিন, ইসমাইল ও অন্যান্যরা মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। ইসমাইল ও তার সহযোগিদের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী থানায় মাদক মামলা রয়েছে। তেমনি শাহিনের বিরুদ্ধেও রাজবাড়ী থানায় অস্ত্র মামলা আছে। মাদক ব্যবসা সংক্রান্ত লেনদেন কিংবা পূর্ব শত্রুতার জেরে ইসমাইল তার সহযোগিদের নিয়ে এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
রাজবাড়ীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর) মোঃ ফজলুল করিম জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে মাদক সংক্রান্ত বিষয়ের জের ধরে এ ঘটনা ঘটতে পারে। ঘটনার পর থেকে জড়িতরা পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেফতারে পুলিশের কয়েকটি টিম অভিযান চালাচ্ছে। এ খবর লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা হয়নি। ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!