বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০৮:৫৭ অপরাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
লম্পট তারিকুলের বিচার ও মা’কে ফিরে পেতে চায় প্রতিবন্ধী সন্তানরা॥ডিসির নিকট স্মারকলিপি প্রদান বালিয়াকান্দিতে বাজারে পেঁয়াজের দাম মনিটরিং করলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব তুরস্কের বিরুদ্ধে এবার যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা পাংশায় দুইটি সংস্থা পরিদর্শন করলেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক পাংশার হাবাসপুরে বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস পালিত জেন্ডার ভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধে পুরুষদের দায়িত্ব-ভূমিকা শীর্ষক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত কালুখালীতে জব্দকৃত আড়াই মণ ইলিশ মাছ এতিমখানায় বিতরণ দলীয় সমর্থক আবু ডাক্তারের মৃত্যুতে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের শোক রাজবাড়ীতে বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস ও স্যানিটেশন মাস উপলক্ষে র‌্যালী-হাত ধোয়া প্রদর্শনী ও আলোচনা সভা রাজবাড়ীতে বিশ্ব সাদা ছড়ি নিরাপত্তা দিবস পালিত

রাজবাড়ীতে অপচিকিৎসায় শিশুর একটি চোখ নষ্ট করায় ভুয়া হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক মাসুদ গ্রেপ্তার

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই, ২০১৯

॥স্টাফ রিপোর্টার॥ হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে সাড়ে ৩বছর বয়সী ছানি পড়া শিশুর একটি চোখ চিরতরে নষ্ট করে ফেলেছে রাজবাড়ী শহরের পাবলিক হেলথ এলাকার মাসুদ মাহবুব(৪০) নামের একজন স্টুডিও দোকানী।
এ ঘটনায় ওই শিশুর দাদা বাদী হয়ে রাজবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ অভিযুক্ত মাসুদ মাহবুবকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। চোখ হারানো শিশুটির নাম সোনিয়া(৪বছর)। সে রাজবাড়ী সদর উপজেলার রামকান্তপুর তালুকদারপাড়ার গ্রামের কৃষি শ্রমিক রফিক সরদারের মেয়ে।
সোনিয়ার দাদা রিক্সা চালক খোরশেদ সরদার জানান, তার নাতনি সোনিয়ার ডান চোখে ছানি পড়লে তিনি ছানি রোগের চিকিৎসকের খোঁজ করতে থাকেন। লোক মারফত মাসুদ মাহবুবের কথা জানতে পেরে গত ১০/০৪/২০১৯ইং তারিখ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পুত্রবধূ রুবিয়া বেগমের সাথে নাতনি সোনিয়াকে নিয়ে পাবলিক হেলথ এলাকায় মাসুদ মাহবুবের ‘সিঙ্গাপুর স্টুডিও’ নামক দোকানে আসেন। মাসুদ মাহবুব নিজেকে হোমিও চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে প্রকাশ করে, ‘কোন সমস্যা নাই। ১৮ মাসের চিকিৎসায় সোনিয়ার চোখ পুরোপুরি ভালো হয়ে যাবে।’ এরপর মাসুদ মাহবুব তার কাছ থেকে ১হাজার টাকা গ্রহণ করে এবং প্রতি সপ্তাহে ১শ’ টাকা করে গ্রহণ করে সোনিয়ার ছানি পড়া ডান চোখের চিকিৎসা করার অঙ্গীকার করে। সে অনুযায়ী মাসুদ মাহবুব সোনিয়ার চোখের চিকিৎসা করে। কিন্তু তার দেয়া ওষুধ ব্যবহার করতে থাকলে সোনিয়ার চোখের অবস্থা আরো খারাপ হতে থাকে এবং মাসখানেক পূর্বে তার চোখ একেবারে বাইরে(কোটরের) বের হয়ে আসে। বিষয়টি মাসুদ মাহবুবকে জানালে সে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করে তাকে ঢাকায় নিতে বলে।
কোন চিকিৎসক না হয়েও মাসুদ মাহবুব ভুল ওষুধ দিয়ে তার নাতনির চোখে অপচিকিৎসা করে চোখটি চিরতরে নষ্ট করে দিয়েছে। বর্তমানে তার নাতনিকে ঢাকার ইসলামিয়া চক্ষু হাসপাতালের ডাক্তারদের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা করানো হচ্ছে। কিছুদিনের মধ্যেই অপারেশন করে চোখটি ফেলে দিতে বলে তারা জানিয়েছেন।
রাজবাড়ী থানার ওসি স্বজন কুমার মজুমদার জানান, ‘ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। অপচিকিৎসায় শিশুটির চোখ চিরতরে নষ্ট হয়ে গেছে। এ ব্যাপারে শিশুটির দাদার দাখিলকৃত এজাহারটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করে মাসুদ মাহবুবকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। আসামী মাসুদ মাহবুবের যাতে উপযুক্ত শাস্তি হয় সে জন্য যথাযথভাবে মামলাটির তদন্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়া হবে।’ রাজবাড়ী থানার মামলা নং-২২, তাং-১৪/০৭/২০১৯ইং, ধারাঃ ৩৩৮/৩২৬/৪১৯ দঃ বিঃ।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই মোঃ জাহিদুল ইসলাম(১) জানান, থানায় মামলা রেকর্ডের পর শহরের পাবলিক হেলথ এলাকার থেকে আসামী মাসুদ মাহবুবকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মাসুদ মাহবুবকে গতকাল ১৫ই জুলাই আদালতে সোপর্দ করা হলে বিজ্ঞ আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!