বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:০৮ অপরাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
রাজবাড়ীর কোলারহাট বাজারে গাজীর মার্কেটে অগ্নিকান্ডে ৯টি দোকান ভস্মিভূত ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস উপলক্ষে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের কর্মসূচী বালুবাহী ট্রাক চলাচলের ফলে পাইপ নষ্ট॥রাজবাড়ী পৌরসভার পানি সরবরাহ বন্ধ ! রাজবাড়ী আদর্শ মহিলা কলেজের ৯জন শিক্ষার্থীকে আফাত আরা পারভীন স্মৃতি বৃত্তি প্রদান রাজবাড়ী মৈত্রী থিয়েটার গ্রুপের নতুন কমিটি গঠন চলতি বছরের ‘বগুড়া লেখক চক্র পুরস্কার’ প্রাপ্তদের নাম ঘোষণা বালিয়াকান্দির জামালপুর বাজারের দুইটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের জরিমানা বালিয়াকান্দির গড়াইতে অসময়ে ভাঙ্গনে বহু জমি নদীগর্ভে বিলীন ফরিদপুরে গাঁজাসহ স্বামী-স্ত্রী গ্রেফতার ! বালিয়াকান্দিতে মৎস্য বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

রাজবাড়ীতে স্কুল ছাত্রীর গায়ে কেরোসিন দিয়ে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা মামলায় ২জন গ্রেফতার

  • আপডেট সময় সোমবার, ১০ জুন, ২০১৯

॥দেবাশীষ বিশ্বাস/হেলাল মাহমুদ॥ রাজবাড়ী সদর উপজেলার পাঁচুরিয়া ইউনিয়নের খোলাবাড়ীয়া গ্রামে ১০ম শ্রেণীর স্কুল ছাত্রীর(১৬) গায়ে কেরোসিন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা মামলার প্রধান আসামীসহ ২জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।
গ্রেফতারকৃতরা হলো ঃ একই গ্রামের(খোলাবাড়ীয়া) জাহাঙ্গীর মিজির স্ত্রী শিল্পী বেগম(৪৫) এবং রাস্তাডাঙ্গা গ্রামের মৃত গোলাম নবী বাবলুর ছেলে গোলাম রায়হান সেতু।
রাজবাড়ী থানা পুলিশের অভিযানে গতকাল ৯ই জুন দুপুরে খানখানাপুরের করিম ফিলিং স্টেশন থেকে মামলার প্রধান আসামী শিল্পী বেগমকে এবং নিজ বাড়ী থেকে গোলাম রায়হান সেতু’কে গ্রেফতার করা হয়।
পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি বিপিএম, পিপিএম-সেবা জানান, স্কুল ছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা মামলার প্রধান আসামী শিল্পী বেগমসহ সেতু নামের আরেকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রাজবাড়ী থানা পুলিশসহ আমাদের আরেকটি টিম তাদেরকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত কেউ ছাড় পাবে না। অন্য আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ৬ই জুন দুপুরে পাঁচুরিয়া ইউনিয়নের খোলাবাড়ীয়া গ্রামের জুথি(১৬) নামের ওই স্কুল ছাত্রীকে নিজ বাড়ী থেকে তুলে পাশের পাটক্ষেতে নিয়ে হাত-পা বেঁধে গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুনের পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর পিতা ফজলুর রহমান ব্যাপারী বাদী হয়ে ৮ই জুন ভোরে রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করে। মামলায় প্রতিবেশী শিল্পী বেগমসহ অজ্ঞাত ৪ জনকে আসামী করা হয়। আহত যুথি বর্তমানে নিজ বাড়ীতেই চিকিৎসাধীন রয়েছে।
যুথির মা নাসিমা বেগম বলেন, যুথি খানখানাপুরের তমিজ উদ্দিন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী। ঈদের দিন(বুধবার) আমাদের প্রতিবেশী শিল্পী বেগম আমার মেয়ের কাছে ‘অন্য ছেলের সাথে সম্পর্ক ও আপত্তিকর ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার’ হুমকি দিয়ে মোটা অংকের টাকা দাবী করে। আমার মেয়ে এতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আমাদের কাছে বলে দিলে সে ক্ষুদ্ধ হয়। গত বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে আমি ঘরের মধ্যে ঘুমাচ্ছিলাম। যুথি ও তার ছোট বোন বাইরে জাম খাচ্ছিল। হঠাৎ ছোট মেয়ের চিৎকারে আমার ঘুম ভেঙ্গে যায়। বাইরে বের হয়ে বড় মেয়ের কথা জিজ্ঞাসা করলে সে বলে বোরকা পড়া ২জন লোক তাকে তুলে নিয়ে গেছে। তখন আমিও চিৎকার করতে থাকি। আমার চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে বাড়ীর পিছনের পাটক্ষেত থেকে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় মেয়েকে উদ্ধার করা হয়।
যুথিদের প্রতিবেশী সাথী সরকার বলেন, চিৎকার-চেঁচামেচিতে আমরা এগিয়ে গিয়ে তাকে উদ্ধার করি। তার মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন ও গায়ের জামা-কাপড় ছেঁড়া ছিল।
মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে আসা যুথি জানায়, পাশের গ্রামের রাজু নামের একটি ছেলে তাকে পছন্দ করতো। বিষয়টি তাদের প্রতিবেশী শিল্পী বেগম জানতো। এটাকে কেন্দ্র করে সে তার কাছে টাকা দাবী করে। বিষয়টি পরিবারকে জানানোয় তার আক্রোশে পরের দিন দুপুরে তাকে তুলে নিয়ে ওড়না দিয়ে হাত-পা বেঁধে গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়।
যুথির বড় ভাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪র্থ বর্ষের ছাত্র সোহেল ব্যাপারী বলেন, এ ঘটনায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতে থাকায় গত ৭ই জুন রাতে আমি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্ট দেই। কিছুক্ষণ পর রাজবাড়ী থানার ওসি পুলিশ পাঠিয়ে থানায় ডেকে নিয়ে বিস্তারিত জেনে মামলা করার পরামর্শ দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!