বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৫৭ পূর্বাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
বিশ্বব্যাপী ওমিক্রন সংক্রমণ বৃদ্ধিতে আইসোলেশন মেয়াদ অর্ধেক করার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ওমিক্রন ভেরিয়েন্ট ডেল্টা ও বিটার তুলনায় তিন গুণের বেশী পুনঃ সংক্রমন ঘটাতে পারে : গবেষণা প্রতিবেদন জাতিসংঘ ভবনের বাইরে এক বন্দুকধারী গ্রেফতার শান্তি চুক্তির পঞ্চম বার্ষিকী উপলক্ষে কলম্বিয়া সফর জাতিসংঘ মহাসচিব সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনীর প্রধানগণের সাক্ষাৎ করোনা ভাইরাসের সংক্রমন বেড়ে যাওয়ায় অস্ট্রিয়ায় লকডাউন করোনা সংক্রমণ বাড়ায় ইউরোপের বিভিন্ন দেশে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ ভারতে নতুন করে ১০ হাজার ৩০২ জন করোনায় আক্রান্ত নভেম্বর মাসজুড়ে করাঞ্চলে কর মেলার সেবা পাবেন করদাতারা ঔপনিবেশিক আমলের ফৌজদারী কার্যবিধি যুগোপযোগী হচ্ছে

রিটার্নিং অফিসার কর্তৃক যাচাই-বাছাই সম্পন্ন॥বৈধ প্রার্থী ১৬জন॥রাজবাড়ীর দুইটি আসনে দুই প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল

  • আপডেট সময় সোমবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৮

॥স্টাফ রিপোর্টার॥ আগামী ৩০শে ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে রাজবাড়ী-১ ও রাজবাড়ী-২ আসনের মনোয়নয়নপত্র দাখিলকারী প্রার্থীদের যাচাই-বাছাই কার্যক্রম গতকাল ২রা ডিসেম্বর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সম্পন্ন করা হয়।
দাখিলকৃত মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইকালে জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার মোঃ শওকত আলী মনোনয়নপত্র দুইটি বাতিল ঘোষণা করেন।
তাদের মধ্যে রাজবাড়ী-১ আসনে দাখিলকৃত মনোনয়নে জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর ও ফটোকপি না দেয়ায় ন্যাশনালিস্ট পিপলস পার্টির প্রার্থী (এনপিপি)’র কেএইচএম নাজমুল হকের এবং প্রয়োজনীয় সংখ্যক (১%) ভোটারের সমর্থনসূচক স্বাক্ষর না থাকায় রাজবাড়ী-২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ নূরুদ্দিন মিয়ার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। এ সময় দুইটি আসনে মনোনয়নপত্র দাখিল করা ১৮জন প্রার্থীর সকলেই উপস্থিত ছিলেন।
রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মোঃ শওকত আলীর সভাপতিত্বে বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত যাচাই-বাছাইয়ের পর রাজবাড়ী-১ আসনে ৬টি রাজনৈতিক দলের ৭জন মনোয়নয়নপত্র জমাদানকারী প্রার্থীর মধ্যে ৫টি দলের ৬জনের মনোনয়নপত্র বৈধ এবং ১জনের মনোনয়নপত্রে তথ্য ঘাটতি থাকার কারণে বাতিল করা হয়।
অপরদিকে রাজবাড়ী-২ আসনে ৮টি রাজনৈতিক দল ও স্বতন্ত্রসহ ১১জন মনোয়নয়নপত্র জমাদানকারী প্রার্থীর মধ্যে দলীয় ১০জনের মনোনয়নপত্র বৈধ এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য নির্বাচন আইন অনুযায়ী যে যোগ্যতার প্রয়োজন হয় তা না থাকায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল বলে গণ্য হয়।
রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মোঃ শওকত আলী রাজবাড়ী-১ এবং রাজবাড়ী-২ আসনের প্রার্থীদের নাম ঘোষণাকালে বলেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রতিটি প্রার্থীর নির্বাচনী আইনের বিধিমালা অনুযায়ী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে হলফনামাসহ অন্যান্য যে সমস্ত কাগজপত্রের প্রয়োজন হয় সেগুলো পুঙ্খানুপুঙ্খরূপে যাচাই-বাছাইয়ের পর রাজবাড়ী-১ ও রাজবাড়ী-২ আসনের প্রার্থীদের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে রাজবাড়ী-১ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী কাজী কেরামত আলী, বিএনপির মনোনয়নপ্রাপ্ত ২জন প্রার্থী আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়ম ও এডঃ আসলাম মিয়া, জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী মোঃ আক্তারুজ্জামান হাসান, ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম খান ও কাদের সিদ্দিকীর কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের জুয়েল রানার নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য সকল তথ্য সঠিক থাকা, মামলা সংক্রান্ত বা কোন আর্থিক প্রতিষ্ঠানে কোন রকম খেলাফী না থাকা ও এই ওপেন হাউজে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারতে পারবে না এমন কোন অভিযোগ না থাকার কারণে তাদেরকে বৈধ প্রাথী হিসেবে ঘোষণা করা হলো এবং ন্যাশনালিস্ট পিপলস পার্টির (এনপিপি)’র প্রার্থী কেএইচএম নাজমুল হককে তার দল থেকে যে মনোনয়নপত্র প্রদান করা হয়েছে সেখানে তার জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর না থাকার কারণে তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হলো।
এরপর রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক রাজবাড়ী-২ আসনের বৈধ প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করে বলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মোঃ জিল্লুল হাকিম, বিএনপির মনোনয়নপ্রাপ্ত ৩জন প্রার্থী নাসিরুল হক সাবু, হারুন-অর রশিদ হারুন ও এডঃ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক খান, জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী এডঃ এবিএম নুরুল ইসলাম, জাসদ (রব)’র প্রার্থী খন্দকার সদরুল আমিন হাবিব, সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের প্রার্থী নাজমুল হাসান, গণফোরামের প্রার্থী ইমামুজ্জামান চৌধুরী, ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী নূর মোহাম্মদ ও জাসদ (ইনু)’র প্রার্থী সুশান্ত কুমার বিশ্বাসের নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য সকল তথ্য সঠিক থাকা, মামলা সংক্রান্ত বা কোন আর্থিক প্রতিষ্ঠানে কোন রকম খেলাফী না থাকা ও এই ওপেন হাউজে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারতে পারবে না এমন কোন অভিযোগ না থাকার কারণে তাদেরকে বৈধ প্রাথী হিসেবে ঘোষণা করা হলো। স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ নূরুদ্দিন মিয়ার প্রয়োজনীয় সংখ্যক ভোটারের (১%) সমর্থনসূচক স্বাক্ষর না থাকায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হলো। এছাড়াও তিনি নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী সকল প্রার্থীকে নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চালার আহ্বান জানান।
এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ আশেক হাসান এবং জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ হাবিবুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ ও মনোনয়নপত্র দাখিলকারী সকল প্রার্থী উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!