রাজবাড়ীতে অপচিকিৎসায় শিশুর একটি চোখ নষ্ট করায় ভুয়া হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক মাসুদ গ্রেপ্তার রাজবাড়ীতে অপচিকিৎসায় শিশুর একটি চোখ নষ্ট করায় ভুয়া হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক মাসুদ গ্রেপ্তার – দৈনিক মাতৃকণ্ঠ
শুক্রবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৯, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের বিমান বহরে তৃতীয় ড্রিমলাইনার গাংচিল উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী রাজবাড়ী পৌরসভার উদ্যোগে ডেঙ্গু প্রতিরোধ বিষয়ক মতবিনিময় সভা শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসকের বাণী রাজবাড়ী থেকে চুরি হওয়া পালসার মোটর সাইকেল বোয়ালমারী থেকে উদ্ধার॥গ্রেপ্তার-৮ রাজবাড়ীর শহীদওহাবপুরের ড্রেজার চালক ইলিয়াছকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর প্রতিবাদে শোচ্চার এলাকাবাসী রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসকের সাথে একুশে পদকপ্রাপ্ত চিত্রশিল্পী মনসুর-উল-করিমের সাক্ষাৎ যুবসমাজ ও শিক্ষার্থীদের পাঠাগারমুখী করতে হবে—রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম খানখানাপুরে ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনালে তুহিন স্মৃতি সংঘ বিজয়ী আমিরাতে ‘গোল্ডেন ভিসা’ পেলেন একই পরিবারের তিন বাংলাদেশী রাজবাড়ীতে হ্যান্ডকাপসহ পালিয়ে যাওয়া দুই আসামী পৌরসভার পুকুরে থেকে পুনরায় গ্রেফতার

রাজবাড়ীতে অপচিকিৎসায় শিশুর একটি চোখ নষ্ট করায় ভুয়া হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক মাসুদ গ্রেপ্তার

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই, ২০১৯

॥স্টাফ রিপোর্টার॥ হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে সাড়ে ৩বছর বয়সী ছানি পড়া শিশুর একটি চোখ চিরতরে নষ্ট করে ফেলেছে রাজবাড়ী শহরের পাবলিক হেলথ এলাকার মাসুদ মাহবুব(৪০) নামের একজন স্টুডিও দোকানী।
এ ঘটনায় ওই শিশুর দাদা বাদী হয়ে রাজবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ অভিযুক্ত মাসুদ মাহবুবকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। চোখ হারানো শিশুটির নাম সোনিয়া(৪বছর)। সে রাজবাড়ী সদর উপজেলার রামকান্তপুর তালুকদারপাড়ার গ্রামের কৃষি শ্রমিক রফিক সরদারের মেয়ে।
সোনিয়ার দাদা রিক্সা চালক খোরশেদ সরদার জানান, তার নাতনি সোনিয়ার ডান চোখে ছানি পড়লে তিনি ছানি রোগের চিকিৎসকের খোঁজ করতে থাকেন। লোক মারফত মাসুদ মাহবুবের কথা জানতে পেরে গত ১০/০৪/২০১৯ইং তারিখ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পুত্রবধূ রুবিয়া বেগমের সাথে নাতনি সোনিয়াকে নিয়ে পাবলিক হেলথ এলাকায় মাসুদ মাহবুবের ‘সিঙ্গাপুর স্টুডিও’ নামক দোকানে আসেন। মাসুদ মাহবুব নিজেকে হোমিও চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে প্রকাশ করে, ‘কোন সমস্যা নাই। ১৮ মাসের চিকিৎসায় সোনিয়ার চোখ পুরোপুরি ভালো হয়ে যাবে।’ এরপর মাসুদ মাহবুব তার কাছ থেকে ১হাজার টাকা গ্রহণ করে এবং প্রতি সপ্তাহে ১শ’ টাকা করে গ্রহণ করে সোনিয়ার ছানি পড়া ডান চোখের চিকিৎসা করার অঙ্গীকার করে। সে অনুযায়ী মাসুদ মাহবুব সোনিয়ার চোখের চিকিৎসা করে। কিন্তু তার দেয়া ওষুধ ব্যবহার করতে থাকলে সোনিয়ার চোখের অবস্থা আরো খারাপ হতে থাকে এবং মাসখানেক পূর্বে তার চোখ একেবারে বাইরে(কোটরের) বের হয়ে আসে। বিষয়টি মাসুদ মাহবুবকে জানালে সে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করে তাকে ঢাকায় নিতে বলে।
কোন চিকিৎসক না হয়েও মাসুদ মাহবুব ভুল ওষুধ দিয়ে তার নাতনির চোখে অপচিকিৎসা করে চোখটি চিরতরে নষ্ট করে দিয়েছে। বর্তমানে তার নাতনিকে ঢাকার ইসলামিয়া চক্ষু হাসপাতালের ডাক্তারদের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা করানো হচ্ছে। কিছুদিনের মধ্যেই অপারেশন করে চোখটি ফেলে দিতে বলে তারা জানিয়েছেন।
রাজবাড়ী থানার ওসি স্বজন কুমার মজুমদার জানান, ‘ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। অপচিকিৎসায় শিশুটির চোখ চিরতরে নষ্ট হয়ে গেছে। এ ব্যাপারে শিশুটির দাদার দাখিলকৃত এজাহারটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করে মাসুদ মাহবুবকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। আসামী মাসুদ মাহবুবের যাতে উপযুক্ত শাস্তি হয় সে জন্য যথাযথভাবে মামলাটির তদন্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়া হবে।’ রাজবাড়ী থানার মামলা নং-২২, তাং-১৪/০৭/২০১৯ইং, ধারাঃ ৩৩৮/৩২৬/৪১৯ দঃ বিঃ।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই মোঃ জাহিদুল ইসলাম(১) জানান, থানায় মামলা রেকর্ডের পর শহরের পাবলিক হেলথ এলাকার থেকে আসামী মাসুদ মাহবুবকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মাসুদ মাহবুবকে গতকাল ১৫ই জুলাই আদালতে সোপর্দ করা হলে বিজ্ঞ আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!