দেশে এসেও দলীর প্রার্থীর পক্ষে সক্রিয় ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের আওয়ামী লীগ নেতা আবু সাঈদ খান দেশে এসেও দলীর প্রার্থীর পক্ষে সক্রিয় ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের আওয়ামী লীগ নেতা আবু সাঈদ খান – দৈনিক মাতৃকণ্ঠ
মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯, ০৭:২৬ পূর্বাহ্ন
Logo
সংবাদ শিরোনাম ::
পাল্টে যাচ্ছে গোয়ালন্দ মোড় ও রাজবাড়ী রাস্তার মোড়ের নাম ফরিদপুরে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মসজিদের খাদেমের মৃত্যু নগরকান্দার জোড়া খুনের সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবীতে সংবাদ সম্মেলন-মানববন্ধন রাজবাড়ী ডায়াবেটিক সমিতির আয়োজনে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ভাঙ্গায় জুয়েলার্সের মধ্যে ইয়াবা বেচাকেনার সময় ৪জন গ্রেপ্তার জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বালিয়াকান্দিতে ইফার আয়োজনে আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণ ডিবির অভিযানে দাদশী থেকে ইয়াবাসহ বিক্রেতা গ্রেফতার বালিয়াকান্দিতে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেপ্তার জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সোনাকান্দরে দোয়া মাহফিল ফরিদপুরে র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ বিক্রেতা গ্রেপ্তার

দেশে এসেও দলীর প্রার্থীর পক্ষে সক্রিয় ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের আওয়ামী লীগ নেতা আবু সাঈদ খান

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০১৯

॥স্টাফ রিপোর্টার॥ গত ৩০শে ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচনের পূর্বে দেশে এসে নিজ নিজ রাজনৈতিক দলের জন্য কাজ করে গেছেন অনেক প্রবাসী নেতাকর্মী। দলের মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে এলাকায় নির্বাচনী কর্মকান্ডে অংশ নিয়ে প্রার্থীর বিজয় লাভের পর ফিরেছেন প্রবাসে।
তাদের একজন আবু সাইদ খান। তিনি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর দল আওয়ামী লীগের পক্ষে নির্বাচনী কাজে অংশ নিতে ও নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিজয়ের জন্য এসেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের পেনিসিলভেনিয়া স্টেট থেকে।
পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার চরদুলাই গ্রামের কৃতি সন্তান আবু সাইদ খান যুক্তরাষ্ট্রের পেনিসিলভেনিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং পেনিসিলভেনিয়া বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক।
নিজ এলাকায় নির্বাচনের মাঠে ব্যস্ততম সময় কাটিয়ে দলীয় প্রার্থীর বিজয়ে ভূমিকা রেখে এবং এলাকার বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করে গত ৪ঠা জানুয়ারী আমেরিকা ফিরে গেলেন তিনি।
‘আওয়ামী লীগের গ্রাম’ হিসেবে পরিচিত চরদুলাই-এ জন্মগ্রহণকারী আবু সাইদ খান পারিবারিকভাবেই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। হাই স্কুলে পড়ার সময়ই এলাকার বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত করেন। তিনি ‘অতএব সাংস্কৃতিক সংঘ’র প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য ছিলেন। ঐতিহ্যবাহী জয়বাংলা ক্লাবের সভাপতি হিসেবেও নির্বাচিত হন। পাবনা এডওয়ার্ড কলেজে পড়ার সময় ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত ছিলেন। ২০০৩ সালে সুজানগর উপজেলা যুবলীগের সম্মেলনে কার্যকরী সদস্য হিসেবে কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত হন। ২০০৫ সালে তিনি আমেরিকায় পাড়ি জমান। পেনসিলভেনিয়া স্টেটে বসবাস শুরু করেন। শুরু থেকেই পেনসিলভেনিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত হয়ে দলের জন্য কাজ করতে থাকেন। প্রথমে আহ্বায়ক কমিটিতে এবং পরবর্তীতে ২০০৮ সালে পেনসিলভেনিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের প্রথম পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ১নং যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হন। ২০১০ সালে পেনসিলভানিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের কমিটিতেও ১নং যুগ্ম-সাধারণ হিসেবে পুনরায় নির্বাচিত হন। দলের দুঃসমযে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ ২০১৮ সালের ১৫ই এপ্রিল অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে পেনসিলভেনিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে দেশে আসার পর গত ৭ই ডিসেম্বর পাবনা-২ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আহমেদ ফিরোজ কবির, সুজানগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওহাব, সাধারণ সম্পাদক শাহীনুজ্জামান শাহীন, সুজানগর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি সাইদুর রহমান সাইদ, দুলাই ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান বাদশা, সুজানগর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের অনেক নেতাকর্মী তার বাড়ীতে সাক্ষাৎ করেন। ৮ই ডিসেম্বর পাবনা-২ আসনের সংসদ সদস্য খন্দকার আজিজুর রহমান আরজু দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। ৯ই ডিসেম্বর তিনি দুলাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত পাবনা-২ আসনের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী আহমেদ ফিরোজ কবিরের নির্বাচনী কর্মী সভায় নেতাকর্মীদের সঙ্গে অংশগ্রহণ করেন। ১০ই ডিসেম্বর আহমেদ ফিরোজ কবিরের সাথে নির্বাচনী গণসংযোগ ও উঠান বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। ১১ই ডিসেম্বর নির্বাচনী প্রচারণার অংশ হিসেবে নেতাকর্মীদের নিয়ে নাজিরগঞ্জ ইউনিয়নের নওয়াগ্রাম বাজারের অফিসে নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন। ১৬ই ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত বিজয় মিছিলে অংশগ্রহণ করেন। ১৭ই ডিসেম্বর নাজিরগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত উদয়পুর হাই স্কুল মাঠের বর্ধিত সভা ও নির্বাচনী কর্মী সমাবেশে অংশগ্রহণ করেন। ১৮ই ডিসেম্বর পাবনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল রহিম লালের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা করেন। ১৯শে ডিসেম্বর পাবনা জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে নৌকা মার্কার বল উত্তোলন অনুষ্ঠানে যোগদান করেন।
২১শে ডিসেম্বর তিনি রাজবাড়ীতে দৈনিক মাতৃকণ্ঠের কার্যালযে পত্রিকার সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে জাতিসংঘ সফরকারী খোন্দকার আব্দুল মতিনের সাথে সাক্ষাৎ করেন। এ সময় তিনি সেখানে সাংবাদিক ও আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করেন।
২৬শে ডিসেম্বর পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পাবনা-৫ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গোলাম ফারুক খন্দকার প্রিন্সের নির্বাচনী কর্মী সভায় অংশগ্রহণ করেন। ২৭শে ডিসেম্বর তিনি গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধাঞ্জলী নিবেদন করে দোয়া-মোনাজাত করেন। গত ২৮, ২৯ ও ৩০শে ডিসেম্বর দুলাই ইউনিয়ন ছাত্রলীগের অফিসে নেতাকর্মীদের সাথে নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশ নেন।
৩১শে ডিসেম্বর দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে পাবনা-২ আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য আহমেদ ফিরোজ কবির এবং পাবনা-৫ আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক খন্দকার প্রিন্সকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এরপর এলাকার সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের সাথে বর্ষবিদায় জানানোসহ মোমবাতি জ্বালিয়ে, কেক কেটে ও ফানুস উড়িয়ে নববর্ষ উদযাপন করেন।
এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পেনিসিলভেনিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ খান বলেন, প্রবাসে বসবাস করলেও সমসময় আমি দেশের ও এলাকার উন্নয়নের কথা ভাবি। সে জন্যই নির্বাচন এলেই দেশে ফিরে এলাকায় দিয়ে দলের জন্য এবং দলের মনোনীত প্রার্থীর বিজয়ের লক্ষ্যে এলাকায় কাজ করি।
তিনি আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা আজ বিশ্বের বুকে রোল মডেল। দেশকে এগিতে নিতে কোন বিকল্প নেই।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্র সফরের সময় ২০১৭ সালের ১লা অক্টোবর ভার্জিনিয়ার রিজ-কার্লটন হোটেলে অবস্থানকালে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্টেটের নেতৃবৃন্দের সাথে সাক্ষাৎ করেন। ওই সাক্ষাৎকালে তিনি পাবনা, রাজবাড়ী, নাটোর, রাজশাহী, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা, ঝিনাইদহ, যশোর ও মাগুরা জেলার বাসিন্দাদের রাজধানী ঢাকার সাথে নদীপথে যোগাযোগের দুর্ভোগ তুলে ধরে সহজে যোগাযোগ স্থাপনের জন্য আরিচা থেকে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া এবং পাবনার কাজিরহাটে ণ (ওয়াই) সিস্টেমের সেতু নির্মাণের মেগা প্রকল্প হাতে নেওয়ার প্রস্তাব করেন। সেদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার প্রস্তাবে কোন প্রতিশ্রুতি না দিলেও বিষয়টি এবারের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে অন্তর্ভুক্ত করেছেন। এজন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
error: আপনি নিউজ চুরি করছেন, চুরি করতে পারবেন না !!!!!!